“আপনার আঁকার হাত চমৎকার! প্রশংসা না করে পারলাম না!”, মমতার পেইন্টিং দেখে আপ্লুত সুদীপা

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজ তৃতীয়া। ইতিমধ্যেই গোটা রাজ্য জুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছে পুজোর আমেজ। বারোয়ারি পুজো মণ্ডপ গুলিতে চলছে শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি। এমনকি অনেক পুজোর তো ইতিমধ্যেই উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে বলা যায়। এমনকি শহরের বড় বড় পুজো মন্ডপগুলিতে দর্শনার্থীদের ভিড় গতকাল রাত থেকেই কিন্তু দেখা যাচ্ছে।

বিশেষত কলকাতার বড় বড় পূজা মন্ডপগুলিতে সেলিব্রিটিদের দিয়ে উদ্বোধন হচ্ছে। পুজো মন্ডপের উদ্বোধন দেখতে উপচে পড়ছে ভিড়। ঠিক তেমনভাবেই সম্প্রতি বালিগঞ্জের ২১ পল্লীর পুজোর উদ্বোধনে হাজির হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও এদিনের পুজোর উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী তথা রাজ্য শাসক দলের সংসদ বাবুল সুপ্রিয় এবং জি বাংলার রান্নাঘরের সঞ্চালিকা সুদীপা চ্যাটার্জী।

সম্প্রতি এই পুজোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের একটি ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল থেকে শেয়ার করে নিয়েছেন সুদীপা। ভাইরাল সেই ভিডিও দেখে রীতিমতো অভিভূত হয়ে পড়েছেন দর্শকেরা। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে পুজোর উদ্বোধনে এসে হাতে রং তুলি নিয়ে ক্যানভাসে ছবি আকছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তার পাশেই রঙের বাক্স নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়।

তাদের পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন সুদীপা চ্যাটার্জী। এদিন বিভিন্ন রঙের মিছিলে একটা ফুলের তোড়া আঁকতে দেখা গেল মুখ্যমন্ত্রীকে। নিজের instagram প্রোফাইল থেকে বালিগঞ্জের এই পুজোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভিডিও শেয়ার করে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি আঁকার প্রশংসা করে বড়সড়ো ক্যাপশনও দিয়েছেন রান্নাঘরের সঞ্চালিকা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sudipa Chatterjee (@sudiparrannaghor)

ক্যাপশনে সুদিপা লেখেন, “কিছু বহুমূল্য মুহূর্ত… এত সুন্দর ছবির জন্য আপনাকে যথোপযুক্ত ধন্যবাদ জানাতে পারছি না। মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই আপনি আপনার হাতের জাদুকাঠি দিয়ে অসাধারণ পেইন্টিং তুলে ধরেছেন”। এখনো পর্যন্ত প্রায় ৩০০০ মানুষ এই ভিডিওটি পছন্দ করেছেন তবে খুব বেশি কমেন্ট কিন্তু দেখা যায়নি। প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকলে আপনারাও কিন্তু সুদিপা চ্যাটার্জীর শেয়ার করা এই ভিডিও দেখে নিতে পারেন।।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য দিন কয়েক আগেই এক জনপ্রিয় সংস্থার ডেলিভারি ম্যানদের উদ্দেশ্য করে তির্যক মন্তব্য করে নেট মাধ্যমের একাংশের কটাক্ষের মুখোমুখি হয়েছিলেন সুদীপা। বিতর্ক এতো দূর পৌঁছেছিল যে অনেকেই তাকে অহংকারী আর অসভ্য মহিলা বলে উল্লেখ করেছিলেন।

তবে সুদীপা চ্যাটার্জির জন্য বিতর্ক কোনো নতুন বিষয় নয়। এই ঘটনার পর নিজের প্রোফাইল থেকে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন সুদীপা চ্যাটার্জী। তবে তারপর আবার এক জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে রান্নাঘরের সঞ্চালিকা জানিয়েছিলেন,যেহেতু সাধারণ মানুষ দেখেন তিনি অনেক সোনার গয়না পরেন, টাকা আছে তাই তাকে সকলে আক্রমণ করেন। তার এই মন্তব্যে আরো ক্ষুব্ধ হয়ে যান নেটিজেনরা।

Back to top button