হাই রোডের উপর হঠাৎ নেমে এলো প্রবল জলের স্রোতে! ভেসে গেল সমস্ত গাড়ি! তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোশ্যাল মিডিয়া মানে আধুনিক যুগের অন্যতম এক যোগাযোগ ব্যবস্থা। বর্তমানকালের সোশ্যাল মিডিয়াকে টিভি,নিউজ পেপারের মতোনই শক্তিশালী বলে ধরা হয়।যে কোন খবর দ্রুত ছড়িয়ে যায় অনলাইন নিউজ পোর্টাল গু-লিতে। সারাদিনের ব্যস্ততার ফাঁকে এক নজরেই সাধারণ মানুষ চোখ রাখেন সেই সব খবর গুলিতে। যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আরো উন্নততর হচ্ছে।

আগে শুধুমাত্র এই অনলাইন যোগাযোগ ইমেইল এর মাধ্যমে সীমাবদ্ধ ছিল। কিন্তু স্মার্টফোন এবং ইন্টারনেটের সহজলভ্যতার সাথে সাথে এখন বিভিন্ন চ্যাটিং অ্যাপ্লিকেশন বাজারে এসেছে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম প্রভৃতি। ঘুম থেকে উঠে হোক বা ঘুমাতে যাওয়ার আগে মানুষ এখন এই সোশ্যাল মিডিয়াতে সময় কাটাতে বেশি ভালোবাসেন। তবে এই সোশ্যাল মিডিয়ার যেমন কিছু সুবিধা আছে,

তেমনি রয়েছে কিছু নেতিবাচক দিকও। এরমধ্যে প্রথমেই বলা যায় ছাত্র-ছাত্রীরা বিশেষত টিনেজার ছাত্রছাত্রীরা সোশ্যাল মিডিয়াতে অতিরিক্ত সময় ব্যয় করার ফলে মানসিকভাবে স্থিরবুদ্ধি হয়ে পড়ছে।আর সাধারণ মানুষের মধ্যেও অনেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এতটাই সময় ব্যয় করছেন যে আশেপাশের আপনজনকেও ঠিকভাবে সময় দিতে পারছেন না বা জীবনের আনন্দ সঠিক ভাবে উপভোগ করতে পারছেন না।

তবে যাই হোক না কেন সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া ভিডিওগু-লি বর্তমান সময়ে মানুষের জীবনযাত্রার একদম কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে। নিয়মিত মুঠোফোনে চোখ রাখলেই আমরা নানান ধরনের ভাইরাল ঘটনাবলি খুব সহজেই দেখতে পাই। যেমন সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি অসাধারণ ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা গিয়েছে। ভিডিওটি কোথাকার তা জানা না গেলেও দেখে বেশ অবাক হয়েছেন নেটিজেনরা। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি পাহাড়ি রাস্তার মধ্যে আচমকাই কোন কারণের জল জমে গিয়েছে।

বা সম্ভবত আচমকা বাঁধ থেকে জল ছেড়ে দেওয়ার কারণে রাস্তার নিচু অংশের জল জমে গিয়েছে। যার ফলস্বরুপ রাস্তার উপরিভাগ থেকে আসা গাড়িগুলি সেই জলের মধ্যে এসে প্রায় ডুবন্ত অবস্থায় রয়েছে। গাড়ির চালক ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন গাড়িটিকে রাস্তার উপরিভাগে নিয়ে যাওয়ার কিন্তু জলের অতিরিক্ত স্রোতের কারণে ক্রমাগত ব্যর্থ হয়ে পড়ছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়া না থাকলে আমরা হয়তো এই ধরনের ভিডিও গুলো কোনদিন দেখতে পারতাম না। তাই অবশ্যই আমাদের দিনশেষে সোশ্যাল মিডিয়াকে কুর্নিশ জানানো উচিত।

Back to top button