সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করতে পারবেন যাতায়াত! কোন রুটে চলে ভারতের একমাত্র এই ট্রেন? জানুন বিস্তারিত!

নিজস্ব প্রতিবেদন:ভারতের মত দেশে সাধারণত ট্রেনকে যাত্রীদের সহজ যাত্রাপথের মাধ্যম হিসেবে ধরে রাখা হয়। এর সাহায্যে খুব সহজেই দীর্ঘ দূরত্ব অতিক্রম করা সম্ভব।আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা এমন একটি ট্রেন নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি যেখানে যাত্রীরা বিনা খরচে খুব সহজে যাতায়াত করতে পারবেন।

অর্থাৎ এই ট্রেনে কোনরকম টিকিট ছাড়াই আপনি ভ্রমণ করতে পারবেন। ভারতের এই টিকিটবিহীন ট্রেনটি হিমাচল প্রদেশ থেকে পাঞ্জাব সীমান্তের মধ্যে চলাচল করে থাকে।যদি আপনার এই অঞ্চলে গিয়ে ভাকরা নাঙ্গাল দাম দেখার পরিকল্পনা থেকে থাকে সেক্ষেত্রে আপনি এই ট্রেনে বিনামূল্যে ভ্রমণ করতে পারবেন।

এই ট্রেনটি হিমাচল প্রদেশের ভাকরা বাঁধ এর কাছে অবস্থিত।প্রায় 72 বছরের বেশি সময় ধরে এই ট্রেনটিতে আশেপাশের 25 টি গ্রামের মানুষ বিনামূল্যে ভ্রমণ করে চলেছেন। বিশেষত স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রী থেকে শুরু করে অনেক নিত্যযাত্রীরা এই ট্রেনে ভ্রমণ করে থাকেন। এই ট্রেনটির সমস্ত কোচ কাঠের তৈরি এবং দেখতেও অন্যান্য দিনের তুলনায় কিছুটা আলাদা।

ট্রেনটি চালাতে প্রতিদিন প্রায় 50 লিটার ডিজেল খরচ হয়। ট্রেনটি ভাকরা বাঁধ হয়ে বারমালা, ওলিন্দা, হ্যান্ডলা, স্বামী পুর, খেদা, বাগ, কালাকুন্দ, এবং গোলথাই এর দূরবর্তী গ্রাম গুলির মধ্য দিয়ে যাতায়াত করে থাকে। এই ট্রেনটিতে তিনটি কোচ রয়েছে যার প্রত্যেকটি রাউন্ড সম্পন্ন করতে প্রায় 40 মিনিট পর্যন্ত সময় লাগে।

এই ট্রেনের একটি বগি পর্যটকদের জন্য সংরক্ষিত করা রয়েছে। যাতে এখানে ভ্রমণে আসা পর্যটকদের সুন্দর দৃশ্য উপভোগ করতে এসে কোনো রকম অসুবিধা না হয় সেদিকে বিশেষভাবে নজর রাখা হয়েছে। ট্রেনটি বিনামূল্যে চালানোর প্রেক্ষাপটে মূল কারণ হিসেবে ভাকরা বাঁধ এর কথা বলা যায়। এই বাঁধ পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

Back to top button