লাইভ দেখে নিন আপনার আধার কার্ড দিয়ে বর্তমানে কয়টি সিম চলছে! রইল ভিডিও সহ বিস্তারিত পদ্ধতি।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে জা-লিয়া-তির সংখ্যা এবং এ জালিয়াতি শুধুমাত্র ডিজিটাল মাধ্যমে আছে তেমন কিন্তু নয় তার পাশাপাশি আপনার আধার কার্ডের সাথে হতে পারে। আমরা যত বড় হয় ততই আমাদের সাথে বেড়ে ওঠে বিভিন্ন নথিপত্র। স্কুলের গন্ডি থেকে শুরু হয় যাবতীয় গুরুত্বপূর্ন নথিপত্রের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকে। সেগু-লি বেড়েই চলে। স্কুল বিশ্ববিদ্যালয়ের পর যখন কর্মক্ষেত্র ঢুকি তখন এই নথিপত্রে পরিমান অত্যাধিক হারে বেড়ে যায়।

কিন্তু এই সবের মাঝে যে নথিপত্র সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ এই মুহূর্তে সেটি হলো আধার কার্ড।আপনার প্রত্যেকে জানেন যে গোটা ভারত বাসি জন্য এই নিয়ম এক। প্রত্যেকের কাছে একটি করে আধার কার্ড থাকা বাঞ্ছনীয়। ২০১৪ সালের পর থেকে কেন্দ্রীয় সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এবং এই আধার কার্ড আপনার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ নথি হিসেবে বিবেচিত হবে। কিন্তু এমনও আমাদের আশেপাশের মানুষ ঘুরে বেড়াচ্ছে যারা অন্যের আধার কার্ড দিয়ে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন সিম কার্ড ক্রয় করছে।

এবং সেই সিম কার্ড গুলো সাথে অসামাজিক কাজকর্ম বা অ-পরা-ধমূলক কাজ কর্মের সাথে যুক্ত হয়ে পড়ছে। যার ফলে একাধিক বি-ভ্রান্তির মুখে পড়তে হচ্ছে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষদের কে।এবার আপনি বাড়িতে বসে জেনে নিতে পারবেন যে আপনার আধার কার্ড ব্যবহার করে কেউ কোন সিম কার্ড কিনেছে কিনা কিভাবে জানতে পারবেন তা নিম্নরূপ। প্রথমে আপনাকে ট্রাই এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। https://tafcop.dgtelecom.gov.in/

এরপর যে নাম্বারটি সাথে আপনার আধার কার্ডের লিঙ্ক করা আছে সেই নাম্বারটি ইনপুট করতে হবে এবং ভেরিফাই অপশনে ক্লিক করতে হবে। সাথে সাথে আপনার সামনে খুলে যাবে এমন একটি পেইজ এখানে দেখানো থাকবে যে আপনার আধার কার্ডে ঠিক কতগুলি সিমকার্ড এই মুহূর্তে সক্রিয় রয়েছে। যে নাম্বারটি আপনি আপনার নয় অর্থাৎ যে নাম্বারটি আপনি ব্যবহার করেন না বা আপনার কাছে নেই সেই নাম্বারটি বক্সে ক্লিক করে দিস ইজ নট মী অপশনে ক্লিক করে দেবেন।

এরপরে রিপোর্ট করে দেবেন। এরপরও আপনাকে আপনার নিজের আধার কার্ডের নাম্বার এবং নাম ইনপুট করতে বলা হবে। সেটা বলার পরেই একটি ওটিপি জেনারেট হবে বা বলতে পারেন টিকিট নাম্বার জেনারেট হবে। সেটাকে আপনাকে লিখে রাখতে হবে সুরক্ষিত কোন একটি জায়গায়। এরপর আপনার ই-মেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে যে সেই নাম্বারটি সাথে কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

Back to top button