রিজার্ভ ব্যাংক কে 1 কোটি টাকা জরিমানা দিল SBI! ঠিক কি কারণে হলো এমন ঘটনা? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে পেট্রোল-ডিজেলের পাশাপাশি রান্নার গ্যাসের দাম। এবং এই গ্যাসের দাম মেটাতে গিয়ে রীতীমতো চিন্তিত হয়ে পড়েছে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষেরা । কিন্তু আশার আলো হচ্ছে সরকার একপ্রকার সাবসিটি দিচ্ছে রান্নার গ্যাসের উপর। এবার থেকে শোনা যাচ্ছে যে সম্পূর্ণ রকম ভাবে সাবসিটি বন্ধ করে দিতে চলেছে সরকার। কিন্তু কে তার কারণ রয়েছে জেনে নেবো আমরা আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে।

আর্থিক বছর ২০২১-২২-র প্রথম চার মাসে পেট্রোলিয়াম সাবসিডি ১২৩৩ কোটি টাকা হয়, যা আর্থিক বছর ২০২১-২১-এর একই সময়ে ১৬৪৬১ কোটি টাকা ছিল ৷ সেই সময় দরিদ্র পরিবারগুলি তিনটি এলপিজি সিলিন্ডার বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছিল।সাবসিডির উপরে সরকার আর্থিক বছর ২০২১-এ ৩৫৫৯ কোটি টাকা খরচ করেছে, যা ২০২০ সালে ২৪৪৬৮ কোটি টাকা ছিল ৷ আসলে এটি একটি ডিবিটি স্কিম যা ২০১৫ সালে শুরু করা হয়েছিল৷

কিন্তু এবার থেকে দরিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী মানুষগুলির ছাড়া বাকি সকলের সাবসিটি বন্ধ করে দিতে চলেছে সরকার। সরকারের তরফ থেকে মনটা জানানো হয়েছিল যে যাদের বার্ষিক আয়ের 10 লক্ষের উপর বা 10 লক্ষ টাকা তারা কিন্তু এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারবে না । অর্থাৎ তাদের সাবসিটি দেওয়া হবে না । তার পাশাপাশি যে সমস্ত মানুষের উজালা যোজনা এর আওতায় রয়েছে তারা তাদেরকে বিনামূল্যে গ্যাস কানেকশন নিতে শুরু করেছে সরকার।

প্রথমে ওই সমস্ত ব্যক্তিদের সম্পূর্ণ টাকা দিয়ে গ্যাস সিলিন্ডার কিনতে হতো ।তার পরে পর্যাপ্ত পরিমাণে সাবসিটি তাদের ব্যাংক একাউন্টে প্রবেশ করত। এবার থেকে দরিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী মানুষগুলি ছাড়া সকলে সাবসিটি বন্ধ করছে সরকার এবং গত এক বছরের তুলনায় এপ্রিল-জুলাই ২০২১ এই সময়ের মধ্যে পেট্রোলিয়াম প্রোডাক্টসের উপর দেওয়া সাবসিডি ৯২ শতাংশ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

Back to top button