দারুণ সুরে “বাচপান কা পিয়ার” – গান গেয়ে আবারো সোশ্যাল-মিডিয়ায় ভাইরাল রানু মন্ডল! রইল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোশ্যাল মিডিয়া অনেক মানুষকেই ব্যক্তিগতভাবে পরিচিতি দিয়ে থাকে। এর মধ্যে অন্যতম রানু মন্ডল এর নাম। রানাঘাট রেল স্টেশনে ভিক্ষা করতেন এই রানু মন্ডল। কোন কোন দিন না খেয়ে দিন গুজরান হতো তার। তবে তার কণ্ঠ ছিল অসাধারণ। একদিন এক ইঞ্জিনিয়ার যুবক অতীন্দ্র চক্রবর্তীর নজরে পড়ে যান রানু।সেই যুবক রানুর গানের ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেন। যা মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে ওঠেন নেট দুনিয়ায়।

সাথে সাথেই অসম্ভব পরিচিতি পেয়ে যান রানু মন্ডল। ইন্টারনেট জগতে ওই ভিডিওটি এতটাই ভাইরাল হয় যে বলিউডে কিছু পরিচালকদের চোখে পড়ে যান রানু। যার ফলস্বরুপ খুব শীঘ্রই বলিউডে গান গাওয়ার সুযোগ পান তিনি।এরপর বিখ্যাত সঙ্গীত পরিচালক হিমেশ রেশমিয়ার সাথে গান রেকর্ড করতে দেখা যায় তাকে। হিমেশ রেশমিয়া নিজেও অনেক কষ্ট করে সংগীত জগতে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তাই রানু মন্ডল এর সমস্ত রকম সাহায্য করেছিলেন এই পরিচালক।

কিন্তু আচমকাই জনপ্রিয়তার শীর্ষে স্থানে পৌঁছে গিয়ে রানুর ব্যবহার পরিবর্তিত হতে থাকে। অ-হংকার বাসা বেঁধে ওঠে তার মনে। রেল স্টেশনে থাকা ভিখারিদের তিনি তুচ্ছ মানুষদের সাথে তুলনা করে বসেন। শুধুমাত্র তাই নয় তাদের গায়ে উকুন আছে বলে তাদের সঙ্গে মিশতেননা একথাও বলেন। রানুর এই স্বার্থন্বেষী ব্যবহার তাকে দর্শকদের মন থেকে উধাও করে ফেলে। যার ফলস্বরুপ আবারো বলিউড জগত থেকে হারিয়ে যান তিনি।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে তার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে উঠেছে। ভাইরাল এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সম্পূর্ণ ঘরোয়া পোশাকে বর্তমান সময়ের ট্রেন্ডিং গান “জানে মেরি জানেমান বাচপান কা পেয়ার মেরা ভুল নেহি জানা রে”গাইছেন রানু। কোন রকম বাদ্যযন্ত্র ছাড়াই খালি গলায় গান গাইছিলেন রানুদি।তার অসাধারণ গানের গলার দরুন এই ভিডিওটি অল্পসময়ের মধ্যেই জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।ইউটিউবে এই ভিডিওটির দর্শকসংখ্যা ইতিমধ্যেই লক্ষাধিক এর কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে।দর্শকেরা রানুদির গলা শুনে লাইক এবং কমেন্ট করতেও পিছপা হননি।

Back to top button