বাড়িতে টবে ক্যাপসিপাম চাষ করার দারুন সহজ পদ্ধতি, এইভাবে একবার চাষ করলে সাতদিনে হবে পোকা ছাড়া দুর্দান্ত ফলন, রইলো পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বাড়িতে ছোট জায়গা আছে তার জন্য সঠিক মাত্রায় চাষ করতে পারছেন না তাইতো? আপনার বাড়িতে বাগান তৈরি করার ইচ্ছে প্রবল । কিন্তু কম পরিমাণে জায়গা থাকার জন্য সেই ইচ্ছা পূরণ হচ্ছে না কোনমতে । যদি আপনিও এমন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন তাহলে আজকের প্রতিবেদন সম্পূর্ণ আপনার জন্য । আমরা আমাদের বাড়িতে ছোটখাটো শাকসবজি ফল-মূলে চাষ করে থাকি। বাজারে গিয়ে কেনার থেকে বাড়িতে খাওয়া শাকসবজি অত্যন্ত উপকারী হয় স্বাস্থ্যের পক্ষে । তাই অনেকেই বাড়িতে শাকসবজি ও ফলমূল চাষ করে থাকেন । তবে অনেকের বাড়িতে আবার সেই চাষ করার মত জায়গা থাকে না ।

তারা কি করবে?  এ ব্যাপারে ভেবেছেন কখনো? আমরা ভেবেছি এবং সেটি বলব আজকে প্রতিবেদনে। দেখুন বাজারে অনেক ধরনের শাকসবজি ও ফলমূল কিনতে পাওয়া যায় কম দামে এ কথা সত্য । কিন্তু তাতে যে সমস্ত রাসায়নিক জিনিসপত্র বা উপাদান ব্যবহার করা হয় তা আপনার অজানা । যার ফলে আপনি অজান্তেই নিজের শ-রীরের প্রতিনিয়ত ক্ষ-য় ক্ষ-তি ক-রে চ-লেছেন । এবং যখন আপনি জানছেন যে সেখানে রা-সায়নিক দ্র-ব্য ব্যবহার করা হয় তাহলে জেনে বুঝে কেন একই জিনিস বা একই ভুল বারবার করবেন ।

তার থেকে ভালো হবে যদি বাড়িতেই সেই সমস্ত জিনিসপত্রগুলো চাষ করা যায় । এই যেমন ধরুন ক্যাপসিকাম কে সবুজ দেখানোর জন্য অনেক রং করা হয় যা আপনার শরীর অত্যন্ত ক্ষ-তি-কর। কিন্তু যদি আপনি বাড়িতে ক্যাপসিকাম চাষ করেন তাহলে ব্যাপারটা কেমন হয়? কিভাবে করবেন? জানাবো আজকের প্রতিবেদন এ । প্রথমে আপনাকে বাজার থেকে একটি গোটা ক্যাপসিকাম কিনে নিয়ে আসতে হবে । তারপর সে ক্যাপসিকাম এর মাঝের অংশ থেকে বীজ সংগ্রহ করতে হবে । সেটি একটি পাত্রের মধ্যে রাখতে হবে । তারপর একটি প্লাস্টিকের গ্লাস এর মধ্যে জৈ-বিক সার নিতে হবে ।

যার মধ্যে বালি কম্পোস্ট ইত্যাদির মিশ্রণ থাকবে সমান পরিমাণে । সেই জৈ-বিক সার এর মধ্যে স্থাপন করতে হবে বীজ গু-লিকে । তার পর সামান্য মাত্রায় জল দিয়ে বাড়ির এমন একটি জায়গা রেখে দিতে হবে । যেখানে সবসময় হওয়া চলাচল করে তার পাশাপাশি পাওয়া যায় পর্যাপ্ত পরিমাণে । এরপর প্রতিনিয়ত পরিচর্যা করতে হবে তাঁকে এবং আপনি নিজেই দেখতে পাবেন যে মাত্র ৩৯ দিনে অর্থাৎ এক মাসের মাথায় সেখান থেকে গাছ উৎপন্ন হয়েছে । এবং তার গাছের ডালে ছোট ছোট কুড়ি এসেছে । যেগুলো থেকে পরবর্তীকালে ক্যাপসিকাম তৈরি হবে । এবং এই ক্যাপসিকাম অত্যন্ত সুগঠিত এবং সতেজ হবে এমনটা বলার অপেক্ষা রাখে না ।

Back to top button