স্কুটির ভাইজারের ভিতর ঢুকে রয়েছে বড় কো-ব’রা, স্কুটি নিয়ে চালাতে গিয়েই ফোঁ-স করলো কো-ব’রা, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- রাস্তাঘাটে ব-নে-জ-ঙ্গলে সা-পের কথা শুনলে আমাদের গা ছ-মছ-ম ক-রে ও-ঠে । কারণ হল এমন এক ধরনের স-রীসৃপ প্রা-ণী যার এক ছো-বলেই জী-বন শে-ষ হয়ে যেতে পারে । এবং এই ঘটনার প্রমাণ আগেকার যুগে প্রতিনিয়ত পাওয়া যেত । আগেকার যুগে গ্রামে-গঞ্জে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানুষের মৃ-ত্যুতে সা-পের কা-মড়ে । কারণ তখন উন্নত চি-কিৎসা ব্যবস্থা বা হা-স-পাতালে ব্যবস্থা ছিল না ।যতদিন আমরা উন্নত হয়েছি । তার সাথে সাথে কমেছে এর প্রবণতা কিন্তু একেবারে নির্মূল হয়েছে তেমনটা কিন্তু বলা যেতে পারে না ।

যেহেতু সাপের কামড়ে মৃত্যু হয় তাই সাপ সম্পর্কে একটা আ-তঙ্ক মানুষের মনে কাজ করে । সেটি বি-ষাক্ত সা-প হলেও একই ধরনের কাজ করে ।আবার বিষাক্ত না হলেও একই প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। কিন্তু সেই সাপকে উদ্ধার করার জন্য প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত একদল যুবক বা মহিলাদের দেখা যায় যাদেরকে স্থানীয় ভাষায় আমরা সা-পুড়ে বলে থাকি ।এই সা-পুড়ের বিভিন্ন সাহসিকতার ভিডিও এবং কাজকর্মে প্রমাণ আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পেয়ে থাকি বিভিন্ন সময় সম্প্রতি পেলাম আর একবার ।

ঘটনাটি খুব সম্ভবত উত্তরপ্রদেশে কোন একটি গ্রামের । তবে বাড়ির কোন ঘর থেকে বা আশেপাশের কোন পরিত্যক্ত জায়গা থেকে সাত নয় বরং আপনি জানলে অ-বাক হবেন যে একটি স্কুটির মধ্যে থেকে উঁ-কি দি-চ্ছে বি-ষাক্ত কো-বরা সা-প । স্কুটির যেখানে আয়না লাগানো থাকে সেই জায়গায় কোন কারনে প্রবেশ করেছে একটি বি-ষাক্ত কো-বরা সা-প । সেটি প্রথমে নজরে আসে সেই বাড়ির সদস্যদের । তারপর তারা খবর দেয় এক স্থানীয় সা-পুড়ে কে ।

কিছুক্ষণের মধ্যে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছেছে এক সাপুড়ে এবং তিনি লক্ষ্য করেন যে সাপটি যেভাবে ভেতরে ঢুকে আছে তাতে কোনো ভাবেই তাকে সরঞ্জাম দিয়ে বের করা সম্ভব নয় । কাজেই স্কুটির সামনে যে অংশটি সেটিই প্রথমে খুলতে হবে । তারপর সেখান থেকে তাকে বের করে আনতে হবে । এবং সে তার বুদ্ধি মত সেই কাজটি করলো ।স্কুটির সামনে অংশটি সুন্দরভাবে খুলে সেখান থেকে সাপটিকে উ-দ্ধার কর-লো ওই সা-পুড়ে । যার ফলে সেখানকার বাসিন্দারা কিছুটা হলেও স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পারল । ইতিমধ্যেই ভিডিওটি ভাইরাল আর দুনিয়াতে ।

Back to top button