এইভাবে পরিষ্কার করলে ফ্রিজে হবে না এক ফোঁটা দুর্গন্ধ! খাদ্যদ্রব্য তাজা থাকবে অনেকদিন! রইল ভিডিও সহ বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যাদের বাড়িতে ফ্রিজ রয়েছে তারা নিয়মিত এটি পরিষ্কার করা সংক্রান্ত সমস্যায় ভুগে থাকেন। তবে যাই হোক না কেন ফ্রিজ কখনোই অপরিষ্কার রাখা উচিত নয়। কারণ এটি পরিষ্কার না থাকলে ফ্রিজে থাকা খাবার দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়,পাশাপাশি শরীরে নানা রকম রোগ বাসা বাঁধতে পারে এই খাবার খেলে। এই ফ্রিজ পরিষ্কার এর কিছু সঠিক নিয়ম রয়েছে। আসুন সেগুলো জেনে নেওয়া যাক।

প্রথমত ফ্রিজ পরিষ্কার করার আগে তার সুইচ অবশ্যই বন্ধ করে দিন। এরপর ফ্রিজের পেছনে ও নিচে থাকা কয়েল ভালো করে পরিষ্কার করতে হবে। দ্বিতীয়ত আপনাকে প্রথমেই দেখতে হবে ডিপ ফ্রিজে অনেক বরফ জমে গেছে কিনা!যদি বরফ জমে গিয়ে থাকে তাহলে পরিষ্কার করার কয়েক ঘন্টা আগে ফ্রিজটির বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে রাখুন। এতে বরফ গলে যাবে পরিষ্কার করতেও কোন অসুবিধা হবে না।ফ্রিজ পরিষ্কার করার আগে এতে থাকা সমস্ত খাবার বের করে নিতে কিন্তু অবশ্যই ভুলবেন না।

তৃতীয়ত ফ্রিজ পরিষ্কার শুরু করার আগে সব শেলফ এবং ট্রে গুলো বের করে নিতে হবে। এবারে সেগুলিকে সাবান জলে ভাল করে ভিজিয়ে রাখুন। দেখবেন এরপর হালকা ঘষলেই সমস্ত ময়লা উঠে গিয়েছে। খুব বেশি খাটনির প্রয়োজন হবে না। ময়লা উঠে যাবার পর ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে তারপর ফ্রিজে রাখবেন। চতুর্থত ফ্রিজের ভেতরের অংশ পরিষ্কার করার জন্য ঈষদুষ্ণ জলে বেকিং সোডা বা ভিনিগার মিশিয়ে নিতে পারেন।

এরপর এই মিশ্রণটি দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করলে ফ্রিজের ভেতরে থাকা গন্ধ দূর হয়ে যাবে।ফ্রিজের বাইরে লেগে থাকা দাগ পরিষ্কার এর জন্যেও একই পদ্ধতি প্রয়োগ করা যেতে পারে।সঠিকভাবে ফ্রিজ পরিষ্কার করা হয়ে গেলে বাইরের চারপাশ পরিষ্কার করে নিন।এরপর প্রত্যেকটির ড্রয়ার ফ্রিজের ভেতর রেখে নির্দিষ্ট স্থানে খাবারগুলি রেখে দিন। চেষ্টা করবেন কোন খাবার যাতে পাত্র থেকে ফ্রিজের মধ্যে না পড়ে যায়। এতে খুব দ্রুত ফ্রিজ দাগ বা নোংরা হয়ে যেতে পারে। সবশেষে দেখে নেবেন ফ্রিজের সুইচটি অন করেছেন কিনা,কারণ সঠিক সময়ে সুইচ অন না করলে ফ্রিজে থাকা খাবার নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

Back to top button