বাড়ানো হলো দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের মেয়াদ! আর কত দিন চলবে এই ক্যাম্প? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই ম-হামা-রী অবস্থাতে যাতে কোনো কারণে ভিড় না হয় তার জন্য উ-দ্বিগ্ন প্রকাশ করেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । যে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের সূচনা করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে যে কটা রাজ্য জুড়ে ব্যাপক পরিমাণে হচ্ছে প্রতিটি দুয়ারে সরকার এ । কিন্তু অতিরিক্ত মাত্রায় ভিড় যাতে না হয় তার জন্য ব্যবস্থা নিতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যে প্রায় ২২ হাজার ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হচ্ছে যার মাধ্যমে কয়েক লক্ষ মহিলারা এবং সাধারন মানুষের সুবিধা পাচ্ছে ।

আমরা জানি যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় রাজ্যের বুকে শুরু হয়েছিল লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্প এবং প্রকল্পের আওতায় সাধারন মানুষেরা সুযোগ-সুবিধা পাবেন তা অনুমান করা যেতে পারে । বাড়ির মহিলারা সরকারের কাছ থেকে ৫০০ টাকা এবং হাজার টাকা সরকারি অনুদান পাবে প্রতি মাসে । যার ফলে চালু হয়েছে দুয়ারে সরকার । কিন্তু প্রথম দিন এবং ভিড় দেখা গেছে তাতে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

প্রথম দিনে যে পরিমাণে ভিড় দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে লক্ষ্য করা গেছে তাতে কোভিদ পরিস্থিতি আরও বেড়ে যেতে পারে বলে অনুমান রাজ্য সরকারের ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের । তাই তিনি সকলকে সাবধান করেছেন এবং বলেছেন যাতে করোনা পরিস্থিতি মাথায় রেখে নিরাপদ দূরত্বে বিজয় রেখে সমস্ত কাজ করে । এই ক্যাম্প আগামী এক মাস চলবে । তাই তাড়াহুড়ো কোন কারণ নেই ধীরেসুস্থে সবাই সবকিছু করুন । প্রত্যেকটি প্রকল্পের সুবিধা আপনারা নিন কিন্তু নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে ।

ঐদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফলে যে দরকার হলে আমরা এর সময়সীমা আরও বাড়িয়ে দেব । কিন্তু দয়া করে আপনারা ভিড় বা তাড়াহুড়ো করবেন না । তার পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে যদি কোন পরিবারের সব থেকে বয়স্ক মহিলার নামে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড থেকে থাকে এবং সেই পরিবারের যদি আরো তিনজন মহিলা থেকে থাকে তাহলে কিন্তু তারাও লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা পাবে । মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ঘোষণা তে রীতিমতো উচ্ছাস দেখা গেছে রাজ্য জুড়ে । কারণ যাদের নামে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড ছিল না ।

Back to top button