ভে-ঙে প-ড়েছেন নুসরাতের স্বামী নিখিল, “এভাবে কেনো তুমি আমায় ধোঁ-কা দিলে”, স্টেটাস দিলেন ইন্সটাতে, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই মুহূর্তে খবরের শিরোনাম গ-ভীরভাবে দ-খল করেছে যে দুই তারকা দম্পতি তারা হলেন নিখিল জৈন এবং নুসরাত জাহান । বাংলা চলচ্চিত্র অভিনয় জগতে একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন নুসরাত জাহান । তার পাশাপাশি মানুষ তাকে প্র-তিবা-দী নারী হিসেবে চেনেন ।কারণ রাস্তাঘাট হোক বা যেকোন জায়গা হোক অ-ন্যা-য়ের সাথে আপোষ করতে দেখা যায়নি অভিনেত্রীকে । রাজনৈতিক জগতে রয়েছে ব্যা-পক জনপ্রিয়তা রয়েছে তার । অভিনয় জগতের পাশাপাশি রাজনৈতিক জগতেও তৈরি করেছেন অনুগামী

এবং হয়েছেন এই বাংলার একজন দায়িত্ববান সাংসদ । খোকা ৪২০ সিনেমাটি মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ করেন নুসরাত জাহান । তারপর একের পর এক দুর্ধর্ষ ছবিতে অভিনয় করে মন জয় করে নিয়েছেন দর্শকদের । কিন্তু তার ব্যক্তিগত জীবনে ক্রমশ ঘ-নীভূ-ত হতে থাকে জ-ল্পনার মে-ঘ । বলাবাহুল্য বি-চ্ছে-দের মে-ঘ । ২০১৯ সালে তুরস্ক থেকে ব্যবসায়ী নিখিল জৈন কে বিয়ে করেন তিনি । তার পর থেকে তাদের সম্পর্ক এবং সময় ভালই চলছিলো কিন্তু সেই ছন্দের তাল কা-টে এস এস কলকাতা নামক সিনেমাটির মাধ্যমে ।

কারণ এই সিনেমাতে নুসরাত জাহান এর বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যায় অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত কে এবং সেখানেই তার সাথে প্রেমে পড়ে যান তিনি। এই ঘটনার পর থেকেই নিখিল এর সাথে নুসরাত জাহানের মনোমালিন্য সৃষ্টি হয় । এবং বি-চ্ছেদের মে-ঘে ক্রমশ ঘ-নীভূ-ত হতে শুরু করে । অবশেষে সব জ-ল্পনা কে মান্যতা দিয়ে প্রকাশ্যে আসে তাদের বি-বাদ । সেই অর্থে একের পর এক বি-স্ফোর-ক ম-ন্তব্য বাড়িয়ে তুলেছে তাদের এই ঘটনার জ-ল্পনা-কে ।

নুসরাত জাহান একটি পোষ্টের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন যে তিনি অ-ন্তঃস-ত্ত্বা । কিন্তু এর বাবাকে নিয়ে থেকেছে হাজার প্রশ্ন । সেই অর্থে নিখিল জৈন জানিয়েছেন যে তিনি অন্তত এই সন্তানের বাবা নন । স্বাভাবিক ভাবেই আঙ্গুল উঠতে শুরু করেছিলো যশ দাশগুপ্তের উপরে । কিন্তু তিনি সাংবাদিকদের সামনে জানিয়েছিলেন যে তিনি ওই সন্তানের বাবা না । তারপর থেকে প্রতিনিয়ত বাড়ছে এই ঘটনার জ-ল্পনা ।

নুসরাতের এরকম ব্যবহারে নিখিল জন্য যথেষ্ট আ-ঘাত পেয়েছেন সেটি তার ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট একবার ঘুরে এলে বোঝা যাবে । বিভিন্ন রকম আবেগি পোস্ট শেয়ার করতে থাকছেন নিখিল । তার পাশাপাশি সেই পোষ্টের মাধ্যমে তিনি বলতে চেয়েছেন যে নুসরাতের এই ব্যবহার তাকে পৃথিবীর সমস্ত নারীদের প্রতি বিশ্বাস হা-রাতে বা-ধ্য করেছে । এখন তিনি আর কাউকেই বিশ্বাস করেন না । অবশ্য যদি কাউকে মন থেকে ভালোবাসা যায় এবং ভালবাসার মানুষটি যদি এই ধরনের আচরণ করে তাহলে এমনটা হওয়া হয়তো খুব স্বাভাবিক ।নিখিলে পাশে এসে দাঁড়িয়েছে নুসরাতের অনেক অনুরাগীরা ।

Back to top button