লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প নিয়ে সমস্ত সমস্যার সমাধান করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাধের প্রকল্প হচ্ছে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প । ভোটের আগে অর্থাৎ বিধানসভা ভোটের আগে তিনি এমন টা ঘোষণা করেছিলেন যে কৃষক বন্ধুদের কে ১০ হাজার টাকা করে ভাতা দেবেন । শুরু করবেন লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের কাজ কর্ম । তার পাশাপাশি দুয়ারে রেশন প্রকল্প শুরু করবেন । এর মধ্যে দুইটি কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়ে গেছে ।

কৃষক বন্ধুরা ১০ হাজার টাকা করে পেতে শুরু করে দিয়েছে ইতিমধ্যে । তার পাশাপাশি আমরা দেখেছি লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পে কাজ কর্মের চিত্র । লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প আসলে রাজ্যের মহিলাদেরকে সামনের সারিতে তুলে আনার জন্য এক অভিনব উদ্যোগ বলতে পারেন রাজ্য সরকারের তরফ থেকে । এই প্রকল্পের মাধ্যমে ৫০০ টাকা এবং হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে রাজ্যের মহিলাদেরকে ।

তাই দুয়ারে সরকার যখন অনুষ্ঠিত হয়েছিল তখন রীতিমত চোখে পড়ার মতন ছিল মহিলাদেরকে । প্রত্যেক মহিলা চেয়েছে সরকারি সাহায্য পেতে । কিন্তু অনেকেই হয়ত ব্যক্তিগত কারণে এই ধরনের প্রকল্প সাথে নিজেকে নিযুক্ত করেন নি । আবার অনেকে উপযুক্ত তথ্য বা নথিপত্র না থাকার জন্য যুক্ত হতে পারেনি ।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সবার জন্য আরো একটি বড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন । মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানালেন যে ইতিমধ্যে প্রায় দেড় কোটি মহিলা রা লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্পের নাম নথিভুক্ত করেছে । স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গেলে আপনারা বুঝতে পারবেন যে সেখানে প্রায় দুই কোটি পরিবার নাম নথিভুক্ত করেছে ।

এই দুই কোটি পরিবারের মধ্যে দেড় কোটি পরিবার লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করেছে । এবং প্রত্যেককে পাঁচশো এবং হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে পুজোর আগেই । এমনটা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।তার পাশাপাশি তিনি বলেন যে সমস্ত মহিলারা নিজেদের নাম নথিভুক্ত করতে পারেননি তারা অতি অবশ্যই পরবর্তী ক্ষেত্রে সুযোগ পাবেন ।

Back to top button