মাত্র 2 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেই শুরু করুন দারুণ লাভজনক রড ও সিমেন্টের পাইকারি ব্যবসা! জেনে নিন খুঁটিনাটি।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- প্রতিনিয়ত প্রাকৃতিক জ-ঙ্গলকে কে-টে আমরা তৈরি করছি কংক্রিটের জ-ঙ্গল । একথা আমি আপনি প্রত্যেকে জানি । যে সমস্ত জায়গায় আগে জ-ঙ্গল ছিল বা অত্যধিক মাত্রায় গাছপালা ছিল সেই সমস্ত জায়গা গুলো কে-টে এখন তৈরি হচ্ছে বড় বড় বিল্ডিং বা আবাসন । সেই আবাসনে ঢাকা পড়ে যাচ্ছেএকে অপরের মুখ । আমরা প্রত্যেকেই জানি যে আমাদের আশেপাশে এখন প্রতিনিয়ত বেড়ে উঠেছে বিভিন্ন ঘরবাড়ি।

ছোট-বড়-মাঝারি সমস্ত রকম নিয়ে প্রচুর মাত্রায় ঘরবাড়ি তৈরি হচ্ছে আমাদের আশেপাশে । কারণ মানুষ মূলত জিনিসগুলোর জন্য সংগ্রাম করে বা লড়াই করে তার মধ্যে অন্যতম একটি প্রধান বিষয় হলো বাসস্থান । এর পাশাপাশি আপনাদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়ে রাখি যে বর্তমান যুগে যে হারে চাকরির অবস্থা কমে আসছে তাতে আগামী দিনে ব্যবসা একটা ভালো উপার্জনের পথ হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে ।

কারণ ব্যবসায় মনোনিবেশ করার ফলে অনেকেই কিন্তু লাভবান হয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন থাকছে কি ধরনের ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে । এবং আপনি যদি সত্যিই ব্যবসা শুরু করতে চান তাহলে যে বিষয়টি আপনাকে মাথায় রাখতে হবে আপনি যদি ব্যবসা করতে চান তাহলে অতি অবশ্যই কিন্তু রড সিমেন্ট বালি ইত্যাদির ব্যবসা শুরু করতে পারেন । কারণ এই সমস্ত জিনিসপত্রগুলি ছাড়া ঘর বাড়ি তৈরি করা একেবারেই অসম্ভব ।

তাই যে সমস্ত জায়গায় ঘর বাড়ি তৈরি হচ্ছে বা তৈরি হবার প্রবণতা রয়েছে সেই সমস্ত জায়গাতে যদি আপনি ইট বালি সিমেন্ট রড ইত্যাদির ব্যবসা শুরু করেন তাহলে কিন্তু অধিক পরিমাণে লাভবান হতে পারেন । না বেশি টাকা নয় মাত্র দুই থেকে আড়াই লক্ষ টাকা মূলধন নিয়ে নামলে আপনি কিন্তু সফল হতে পারেন এই ব্যবসাতে। প্রাথমিক পর্যায়ে রড বাবদ ৫০-৭০ হাজার, সিমেন্ট বাবদ ৫০ হাজার, সিলেট বালি,

আস্তর বালি ও ভিটি বালি বাবদ ১০ হাজার, ইট বাবদ ৫০ হাজার, দোকান ভাড়া, আসবাবপত্র, ট্রেড লাইসেন্স ও আনুষঙ্গিক খরচ বাবদ ২০ হাজার আর বাকি ২০ হাজার টাকা হাতে রাখতে হবে। ব্যবসায়ী-মহলের পরামর্শ, হালকা বাকিতে পুঁজি-ঘাটতি কাটাতে জরুরি মুহূর্তে ব্যবসার ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে সতর্কতা হিসেবে এ ব্যবস্থা। এবং বলা বাহুল্য মাস শেষে আপনি কমপক্ষে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন ।

Back to top button