এই গরমে এসি ছাড়াই ঘর দারুন ঠান্ডা রাখার 7 টি দারুণ কৌশল জেনে নিন!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- প্রকৃতির উপর প্রতিনিয়ত আমরা অ-ন্যায় ভাবে অ-ত্যাচার চা-লিয়ে যাচ্ছে যার ফলে প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে বি-শ্ব উ-ষ্ণায়নের মতন ঘটনা এর ফলে ম-হাস-মুদ্রে ব-রফের স্তু-প গ-লতে শুরু করেছে যার ফলে সু-নামি হ-বার আ-শঙ্কা প্র-বল প-রিমাণে তার পাশাপাশি বিশ্বায়নের ফলে প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে আমাদের আশেপাশে প্রকৃতির গরমের প্র-ভাব । বাইরে কোথাও থেকে এলে মন চায় একটু ঠান্ডাতে নিরিবিলিতে বসতে । যাদের সামর্থ্য আছে তারা তো বাড়িতে এয়ারকন্ডিশনার বা শীততাপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র লাগিয়ে রেখে দিয়েছে ।

কিন্তু যাদের সামর্থ্য নেই তারা কি করবে? তাদেরকে সেই গরমের মধ্যেই দিনযাপন করতে হবে? সিলিং ফ্যান বা স্ট্যান্ড ফ্যানের হাওয়া তৃপ্তি আনতে পারে না । তাহলে উপায় কি? অবশ্যই এর কিছুটা আংশিক সমাধান রয়েছে এই প্রতিবেদনে । কারণ এই প্রতিবেদন মাধ্যমে আপনাদেরকে বলতে চলেছি যে কিভাবে বেশ কয়েকটি উপায় অবলম্বন করলে আপনি আপনার বাড়িকে ঠান্ডা রাখতে পারবেন অনেকখানি । আসুন জেনে নেবো সেগুলো কি কি। বাড়ির মধ্যে যে ভেন্টিলেটর আছে সেটিকে সবসময় পরিষ্কার রাখুন ।

বিভিন্ন ধরনের পাখি সেখানে বাসা বেধে যায় সেখানে এবং সেই জায়গাটির নোং-রা ক-রে দে-য় । মাথায় রাখবেন বাড়ি মধ্যে যত ভালো হাওয়া চলাচল হবে ততোই ঘর ঠান্ডা থাকবে। দ্বিতীয় যে পদ্ধতিতে সেটি হল জানলা যদি কোনো কারণে জানলা দিয়ে সূর্যের তাপ ক্রমশ বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করে তাহলে কিন্তু বাড়ি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে । তাই গাঢ় রঙের কোন পর্দা ব্যবহার করুন জানলাতে । এতে রোদ ভেতরে প্রবেশ করতে পারে না। যদি কখনো আপনার কাচের জানলা হয় তাহলে সেই জানলার মধ্যে কিছু ঢাকা দিয়ে রাখুন ।

অর্থাৎ এক ধরনের কভার পাওয়া যায় যেগু-লি সূর্যের তাপ কে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয় না ।এর ফলে ঘর অনেকখানি ঠান্ডা থাকবে। আগেকার দিনে ঘর ঠান্ডা রাখার জন্য ঘরে চারিদিকে মাটির কলসিতে জল ভরে রেখে দেওয়া হতো । এর ফলে যখন কোন বাতাস বইত তখন সেই মাটির কলসি সংস্পর্শে এসে গোটা ঘর ঠান্ডা হয়ে যেত । ঠিক তেমনি এর আধুনিক সংস্করণ আপনি অবলম্বন করতে পারেন । অর্থাৎ একটি টেবিল ফ্যানের নিচে জল বা বরফ রেখে দিতে পারেন বাটিতে করে ।

এবং যে হওয়া আপনার ঘরে সঞ্চারিত হবে সেটি ঠান্ডা হাওয়া হবে । যার ফলে ঘর কিছুটা হল ঠান্ডা থাকবে। ঘরের মধ্যে আবর্জনার স্তুপ একদমই রাখবেন না । বিভিন্ন ধরনের পেপার আসবাবপত্র ইত্যাদি যেগু-লি দরকার নেই সেগু-লি মোটেও ঘরের মধ্যে রাখবেন না । কারণ যতক্ষণ না পর্যন্ত সুস্থ-স্বাভাবিকভাবে হাওয়া চলাচল হবে ততক্ষণ পর্যন্ত ঠান্ডা কিন্তু আসবেনা ঘরে । এই সমস্ত পদ্ধতি অবলম্বন করলে আপনি কিছুটা রেহাই পাবেন এই বী-ভৎস গ-রমের হাত থেকে।

Back to top button