পরিবারের সবাই পাবেন লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা! নতুন ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর! রইল বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এবার বড়োসড়ো ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । প্রত্যেক মহিলারা পাবে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা একদমই ঠিক শুনেছেন । আমরা জানি যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছিল প্রকল্পের কাজ । সেই জন্য প্রতিটি জেলা রাজ্য এবং স্তরে সংগঠিত হয়েছে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প ।

আগের বারের মত এবারও বিশাল সংখ্যক ক্যাম্পের আয়োজন করতে চলেছে রাজ্য সরকার এবং এই ক্যাম্পে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প থেকে শুরু করে পাশাপাশি আরো ১৮ টি প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাবে তবে এবার নবান্ন সূত্রে যে বৈঠক করলেন তাতে উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য । আমরা জানি যে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য যে বিষয়টি থাকা জরুরী সেটা হল স্বাস্থ্য সাথী কার্ড।

প্রথমদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশ্ন করেছিলেন যে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড থাকলেই তারে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন তার পাশাপাশি বয়স ২৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে হতে হবে । এবং সরকারি চাকরি করে না এমন মহিলারা এই সুবিধা পেয়ে যাবেন । কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে যে রাজ্যে এমন বহু মানুষ রয়েছে যারা স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করেনি বা কোনো সমস্যার জন্য করতে পারেনি ।

তাদের ক্ষেত্রে কি হবে তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে যাদের স্বাস্থ্য সাথী কার্ড আছে তারা অতি অবশ্যই আবেদন করুন এবং যাদের নেই তারা প্রথমে দুয়ারে সরকারকে গিয়ে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর জন্য নাম নথিভুক্ত করুন ।

তারপর আবেদন করুন লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য এর পাশাপাশি তিনি ঘোষণা করেন যে যদি বাড়ির প্রধান এর নামে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড থাকলে এবং সদস্য হিসেবে বাড়ির মেয়ে বা বউ এর নাম থেকে থাকে তাহলে কিন্তু তারাও এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারে । অর্থাৎ আবেদনকারীর নামেই স্বাস্থ্য সাথী কার্ড থাকতে হবে এমন কোনো বাধ্যবাধকতা আর রইল না । এই ঘোষণার পর রীতিমতো আনন্দ-উচ্ছ্বাসে ভেসে উঠছে রাজ্যবাসীর একাংশ ।

Back to top button