ভর্তুকিহীন 14.2 কেজি রান্নার গ্যাসের দাম বাড়লো 25 টাকা! মাথায় হাত সাধারন নাগরিকদের! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ফের আরও একবার বাড়ল গ্যাসের দাম যার ফলে রীতিমতো চি-ন্তার ভাঁ-জ সৃষ্টি হয়েছে ।সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের কপালে । আমরা জানি যে এই দ্রব্যমূল্যের বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে । তার সাথে সাথে বেড়ে চলেছে পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম । তবে তার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বাণিজ্যিক এবং গৃহস্থলীর রান্নার গ্যাসের দাম ।গত ছয় মাসে রান্নার গ্যাসের দাম ১৪১ টাকা বেড়েছিল ।

এবার পুনরায় আরও একবার বাড়ল । এরই মাঝে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির উজালা যোজনা দ্বিতীয় প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে গোটা দেশজুড়ে । প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের উন্নত জীবনের স্বপ্ন পূরণের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। সমস্ত বাড়ি বাড়ি থাকবে এলপিজি স্টোভ। পরিযায়ী শ্রমিকদের রেশন কার্ড লাগবে না। সেল্ফ ডিক্লারেশন দিলেই হবে। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে প্রথম বার উজ্জ্বলা যোজনা শুরু করা হয়।

সে বার দরিদ্রসীমার নীচে থাকা পাঁচ কোটি মহিলাকে এই যোজনার আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা ছিল । তবে চেহারে পেট্রোল এবং ডিজেলের রান্নার গ্যাসের দাম বেড়েই চলেছে তাতে কতটা কার্যকর হবে এই প্রকল্প তা নিয়ে থাকছে সংশয় । ফের আরও একবার গৃহস্থলী রান্নার গ্যাসের দাম ২৫ টাকা বাড়লো এবং ২৫ টাকা বেড়ে বর্তমানে রান্নার গ্যাসের দাম হল ৮৮৬ টাকা। কিভাবে মানুষ এই দ্রব্যমূল্য বাজারের সংসার চালাবে তা ভেবে কূলকিনারা পারছেন না ।

হুঁ হু করে দাম যেভাবে বাড়ছে, তাতে অনেকেরই আ-শঙ্কা, পুজোর সময় না চার অঙ্ক ছুঁয়ে ফেলে গ্যাসের দাম। অথচ সাত বছর আগে এই জুলাইয়ে গ্যাসের দাম ছিল অর্ধেকেরও কম। একদিকে গ্যাসের দাম বাড়ছে অন্যদিকে সরকারের কোষাগার ফুলেফেঁপে উঠছে। তৎকালীন পেট্রোলিয়ামমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, পেট্রোপণ্য এবং এলপিজির উপর উৎপাদন শুল্ক থেকে গত ৯ মাসে ৩ লক্ষ কোটি টাকা জমা পড়েছে কেন্দ্রের কোষাগারে।

Back to top button