এই মাসের প্রথম থেকেই শুরু হয়েছে লক্ষীর ভান্ডারের টাকা ঢোকা। দেখে নিন টাকা না আসলে কি কি করণীয়! রইল বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য ইতিমধ্যে অনেকে আবেদন করেছেন এবং আগামী ক্যাম্পে হয়তো আরো অনেকে আবেদন করবেন । কিন্তু যে সমস্ত সমস্যা গুলো দেখা দিচ্ছিল সেগুলো অনেকটা সমাধানের পথে । একাধিক সমস্যা দেখা দিয়েছিল লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের প্রথম দিনে । সমস্ত সমস্যাগু-লি বিভিন্ন ইউটিউব ভিডিওর মাধ্যমে সরকারি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সমাধান হয়েছে ।

ইতিমধ্যে অনেকের লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে শুরু করেছে ।অর্থাৎ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা অনুযায়ী সেপ্টেম্বর থেকে চালু হয়ে গিয়েছে টাকা ঢোকার প্রক্রিয়া । আমরা জানি যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এমনটা ঘোষণা করেছিলেন যে প্রত্যেকের একাউন্টে অর্থাৎ যাদের যাদের লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন পত্র গ্রহণযোগ্য হবে তাদের প্রত্যেকের একাউন্টে পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে হাজার টাকা এবং ৫০০ টাকা করে পাঠিয়ে দেওয়া হবে ।

অনেকে হয়তো এই কথাটা বিশ্বাস করেননি প্রথমদিকে ।কিন্তু তাদের একাউন্টে ঢুকতে শুরু করেছে । কবে কখন কোন সময়ে কোন ব্যাংক থেকে কত টাকা পাঠানো হচ্ছে এবং আপনার পর্যাপ্ত কত ব্যালেন্স রয়েছে সবকিছু কিন্তু আপনি মেসেজের মাধ্যমে জানতে পেরে যাবেন। প্রথমত সকলের উদ্দেশ্যে মনটা জানানো হচ্ছে যে যে সমস্ত গ্রাহকের কাছে বেনিফিশিয়ারি নাম্বার এর মেসেজ ইতিমধ্যে চলে এসেছে সেই সমস্ত গ্রাহকরা অতি অবশ্যই কয়েক দিনের মধ্যেই ব্যাংক একাউন্টে টাকা ঢোকা আর মেসেজ পেয়ে যাবেন ।

অতিরিক্ত ঘাবড়ে না গিয়ে দ্বিতীয়বারের জন্য আবেদন করতে যাবেন না। সে ক্ষেত্রে সমস্যা আপনারই হতে পারেন । তার পাশাপাশি আপনাকে নিশ্চিত থাকতে হবে যে আপনি আবেদনপত্র সঠিকভাবে পূরণ করেছেন এবং সমস্ত তথ্য যেগু-লি আপনি প্রদান করেছেন সেগুলো সঠিক।

Back to top button