কলমি শাক এভাবে রান্না করলে গরম ভাতের সাথে খাওয়াটা জাস্ট জমে যাবে, রইল পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এখনকার যুগের ছেলে মেয়েরা শাক সবজি খেতে ততটা বেশি পছন্দ করেনা । ফাস্টফুডে মজে আছে তাদের মন । কোন কিছু অনুষ্ঠান বা উৎসব হলেই নিমিষেই স্মার্টফোনের মাধ্যমে বাইরের কোন রেস্তোরাঁ থেকে অর্ডার দিয়েছে নামিদামি খাবারগু-লি । যেগু-লি সম্পর্কে আমরা জানি না যে কেমন ভাবে তৈরি করা হয়ে থাকে । যার ফলে একাধিক রোগব্যাধির খবর উঠে আসছে আমাদের চারপাশ থেকে । প্রয়োজনের অতিরিক্ত কোনো কিছুই করা ভালো না ।

যতটুকু প্রয়োজন ততটুকুই ভালো । তার পাশাপাশি বাড়িতে রান্না করা খাবার থেকে উপযুক্ত কোন খাবার হতে পারেনা । শাকসবজি নাম শুনলে অনেকেই নাক সিঁটকায় । কিন্তু আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনাদেরকে বলবো যে একটি অপছন্দের শাক কেউ পছন্দের বানিয়ে নেওয়া যেতে পারে । এই যেমন ধরুন কলমি শাক । খুব একটা খেতে পছন্দ করে না কেউই । তবুও সেটি এবার থেকে খেতে পছন্দ করবে যদি এই পদ্ধতিতে বানান আসুন দেখে নেব কিভাবে তৈরি করবেন,

প্রথমে একটি পাত্রে আপনাকে কিছুটা পরিমাণ সরষের তেল দিতে হবে । তার মধ্যে দিতে হবে পাচফোরন এবং দুইটি শুকনো লঙ্কা । এরপর তার মধ্যে দিতে হবে আগে থেকে কেটে রাখা ছোট ছোট অংশে আলু ।তারপর সামান্য পরিমাণ নুন দিয়ে আলু গুলোকে ভাল করে ভেজে নিতে হবে । আলু ভাজা হয়ে গেলে তার মধ্যে দিতে হবে আগে থেকে ছোট ছোট অংশের কেটে রাখা বেগুনের টুকরোগুলি । পুনরায় বেগুন গুলোকে ভাল করে ভেজে নিতে হবে । এবং তার মধ্যে যোগ করে দিতে হবে তিন থেকে চার কোয়া রসুন।

রসুন দিয়ে দেওয়ার পর তার মধ্যে যোগ করে দেন আগে থেকে কুচিয়ে রাখা এক বাটি পেঁয়াজ । এরপর তার মধ্যে দিয়ে দিন ছোট ছোট ভাবে কেটে রাখা কলমি শাকের অংশ । এই সমস্ত উপকরণ গুলো কে বেশ ভাল করে নাড়তে থাকুন অনেকক্ষণ ধরে । বেশ কিছুক্ষণ ধরে নাড়ার পর দেখবেন গোটা রেসিপির পরিমাণ কিছুটা হলেও কমে এসেছে । কারণ পাতাগুলি ধীরে ধীরে সেদ্ধ হয়ে আসছে । আপনি আপনার পছন্দ মতন অবস্থায় রেখে দিতে পারেন এটিকে । অর্থাৎ শুকনো ভাবে করতে পারেন অথবা সুপ হিসেবেও করতে পারেন ।

Back to top button