সম্প্রতি আপনজনকে হারালেন ‘দিদি নং 1’ রচনা ব্যানার্জী! শোকে ভেঙে পড়েছেন তিনি!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-বেশ কিছুদিন আগেই বাংলার অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি তার বাবাকে হারিয়ে ছিলেন । যার ফলে শোকের ছায়া নেমে এসেছিল তার মনের ঘরে । যদিও এমনটা হওয়া ভীষণ স্বাভাবিক ।তাই সমস্ত কাজকর্ম থেকে নিজেকে কিছুদিনের জন্য সরিয়ে রেখেছিলেন ।

বহু জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো দিদি নাম্বার ওয়ানে সঞ্চালিকা কাজকর্ম তুলে দিয়েছিল অন্য জনের হাতে ।কিন্তু দর্শকদের অনুরোধে পুনরায় দর্শকদের সামনে ফিরতে বাধ্য হয়েছিলেন রচনা ব্যানার্জি ।তবে বাবার মৃত্যুর শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই আরো একবার শোকের ছায়া নেমে এলো তার মনে।

বাংলা ছবি ছাড়া রচনা ব্যানার্জি বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষার ছবিতে অভিনয় করেছে তার মধ্যে একটি ভাষা হল উড়িয়া ভাষা। একাধিক ছবিতে নিজের সহকর্মী হিসেবে পেয়েছিলেন মিহির দাস কে । সরকারের পক্ষ থেকে পাওয়া শ্রেষ্ঠ একজন শিল্পী কিন্তু সেই মিহির দাস অবশেষে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করল কটকের একটি হাসপাতালে ।জানা গিয়েছে বহুদিন ধরে হৃদরোগের এবং কিডনি সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি ।

প্রতিনিয়ত ডায়ালাইসিস চলতো ।তবে এই লড়াইয়ে হার মানতে বাধ্য হল মিহির দাস । কাছের মানুষকে পুনরায় হারিয়ে শোকের ছায়া নেমে এলো রচনা ব্যানার্জীর মনে ।রচনা ব্যানার্জি তার সাথে একাধিক জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেছেন যেমন- গঙ্গা-যমুনা, এক চিলতে সিঁদুর প্রভৃতি।

রচনা ব্যানার্জি এক সাক্ষাৎকারে জানান যে, তার অনেক কাছের মানুষ ছিলেন তিনি এবং অনেক শ্রদ্ধা রয়েছে তার প্রতি কারণ বাংলাতে থেকে গিয়েছিলেন বলে এতোটুকু অপব্যবহার পাননি বরং নতুন কাজ শিখতে সাহায্য করেছেন তাকে। বহু ছবিতে একসাথে কাজ করেছেন এবং বহু কিছু শিখেছেন তার থেকে। এই দুঃসংবাদে তিনি সত্যিই শোকাহত কিন্তু “জীবন থেমে থাকে না জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে” এমনটাই বলেছেন অভিনেত্রী।

Back to top button