ভারতীয় পোস্ট অফিস নিয়ে এলো নতুন দুর্দান্ত স্কীম! 5 বছরের মধ্যে পেয়ে যাবেন 21 লক্ষ টাকা! জানুন কিভাবে!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- প্রতিনিয়ত কমে যাচ্ছে সুদের পরিমাণ বিশেষ করে যারা সিনিয়র সিটিজেন নয় । আমরা সারাজীবন উপার্জন ব্যাংকের মধ্যে জমা রাখি এই কারণে জন্যই কারণ একটা নির্দিষ্ট সময় পর ভালো রিটার্ন পাওয়া যাবে ব্যাংকের তরফ থেকে । কিন্তু যত দিন যাচ্ছে ততই দেখা যাচ্ছে সুদের পরিমাণ ক্রমশ কমতে থাকে । যার ফলে রিটার্ন তো দূরের কথা মূলধন থেকে লাভ বেশি পরিমাণে পাওয়া যাবে না এমন আশঙ্কা উঠে আসছে প্রতিনিয়ত । কিন্তু এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পোস্ট অফিস কিন্তু অনেকখানি এগিয়ে রয়েছে ।

এর থেকে অনেক বেশি পরিমাণে সুদ দিতে শুরু করেছে পোস্ট অফিস গু-লি বিশেষ এই স্কিন এর গ্রাহকদের । আপনি আপনার প্রতিদিনের খরচ থেকে ১০০ বা ২০০ টাকা জমিয়ে রাখতে পারবেন তাহলে কিন্তু পাঁচ বছর পর সেটি বড় রিটার্ন হিসেবে ফেরত পেতে পারেন । কিভাবে জানাবো আপনাদেরকে এই প্রতিবেদনে ।ন্যাশনাল সেভিংস স্কিন নামক একটি প্রকল্প রয়েছে পোস্ট অফিসের তরফ থেকে এবং এই প্রকল্পের আওতায় যদি আপনি বিনিয়োগ করেন তাহলে কিন্তু এফডি এর তুলনায় পেয়ে যাবেন অধিক পরিমাণে সুদ ।

বিজ্ঞপ্তি অনুসারে জানা যাচ্ছে যেখানে আপনাকে ৬.৮ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হবে তার পাশাপাশি আপনি সর্বনিম্ন ১০০ টাকা থেকে বিনিয়োগ করতে পারেন এবং সর্বোচ্চ কত টাকা বিনিয়োগ করবেন তার কোনো সীমা নেই । অর্থাৎ আপনি আপনার মনের মতন যত টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন । এই পোস্ট অফিসে ক্ষেত্রে ১০০,২০০,৫০০,১০০০,১০০০০ ইত্যাদি জাতীয় সার্টিফিকেট পাওয়া যায় যেগু-লি যত ইচ্ছা নিয়ে আপনি বিনিয়োগ করতে পারেন । তবে আপনি যদি ৫ বছরের জন্য ১৫ লক্ষ্য টাকা ইনভেস্ট করেন তবে আপনি ৬.৮% সুদ পেয়ে যাবেন, অর্থাৎ অঙ্ক গিয়ে দাঁড়াবে ২১ লাখ টাকা।

এটি পোস্ট অফিসের স্মল স্কিম প্রকল্প। আপনি যেদিন খুশি এই প্রকল্পের অংশীদার হতে পারেন। নিশ্চিন্তে থাকুন, এখানে আপনার টাকা সুরক্ষিত থাকবে এবং পজিটিভ রিটার্ন পাবেন ৷ আয়কর নিয়ম অনুযায়ী, বছর ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনভেস্টমেন্টে পেয়ে যাবেন ট্যাক্স ছাড় ৷ এই স্কিম ৫ বছরের জন্য হয় ৷ তবে ম্যাচিউরিটির পর আপনি আরও ৫ বছরের জন্য এই স্কিমের সময় বাড়াতে পারবেন ৷ তাহলে আর অপেক্ষা কিসের যদি অল্প পরিমাণ টাকা দিয়ে আপনি যদি অধিক পরিমাণে সুদ পেতে চান তাহলে অতি অবশ্যই ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট নিজেকে নিযুক্ত করুন ।

Back to top button