ওজন কমাতে জিমে গিয়ে খুব খাটছেন অভিনেত্রী শুভশ্রী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- জীবন একটি রঙ্গমঞ্চ । একথা আমরা প্রত্যেকেই জানি আমি একথা এই কারণে বলছি কারণ জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত সময়ের সাথে সাথে পালাতে থাকে । কোন কিছুই চিরস্থায়ী নয় এবং এর উদাহরণ যদি চোখের সামনে সম্প্রতি ধরা দেয় তবে সেটি হল শুভশ্রী গাঙ্গুলী । একদম ঠিক শুনেছেন বাংলার অভিনয় জগতের বিখ্যাত জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন তিনি । কিন্তু কেন তাকে উদাহরণ এর সাথে তুলনা করা যাচ্ছে । সে বিষয়ে থাকছে প্রশ্ন । সেই -উত্তর এ আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি যে শুভশ্রী গাঙ্গুলী যখন ছোট্ট ছেলেকে জন্ম দিয়েছিলেন তখন তার ওজন অধিক মাত্রায় বেড়ে গিয়েছিল ।

জানা গিয়েছিল তার ওজন ছিল ৯২ কিলোগ্রাম । আর এর জন্য তাকে যথেষ্ট ক-টুক্তি শি-কার হতে হয়েছে । বাংলার অভিনয় জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন শুভশ্রী গাঙ্গুলী । বর্ধমান থেকে উঠে এসে কলকাতাতে পাড়ি দিয়েছিলেন নিজের স্বপ্ন পূরণের তাগিদে । অবশ্যই নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছেন । তারপরে পরিচালক রাজ চক্রবর্তী গলাতে মাল্যদান করে বিবাহ ব-ন্ধনে আ-বদ্ধ হন তিনি ।এবং গত বছর একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি । এখন অভিনেত্রী সারাটা দিন বেঁচে থাকে তার ছোট্ট ছেলেকে নিয়ে ।

কারণ তার ছোট ছেলে খু-নসুটি ভিডিও মাঝেমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা মাত্রই ঝ-ড়ের গ-তিতে ভাইরাল হয় । তাইতো ইতিমধ্যে খুলে ফেলা হয়েছে তার নামে একটি ফ্যান পেজ । তবে সন্তান জন্মগ্রহণ করার পর তার শরীরে আমূল পরিবর্তন ঘটে গিয়েছিল । ব্যা-পক পরিমাণে মোটা হয়ে গেছেন শুভশ্রী গাঙ্গুলী । যার ফলে নেটিজেনরা ম-ন্তব্যের কু-রুচিকর ম-ন্তব্যের শি-কার হয়েছিলেন অভিনেত্রী । তবে এখন বিভিন্ন ধরনের নিয়মের মধ্যে দিয়ে গিয়ে তিনি তার শরীরকে আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে এনেছেন।

জানা যায় যে শুভশ্রী গাঙ্গুলী জন্মদিন সন্তান জন্ম দেওয়ার পর তার শরীরে ওজন ছিল ৯২ এবং শুভশ্রী জানিয়েছেন যে দীর্ঘ ছয় মাস তার ছোট্ট ছেলে তার স্তন থেকে দুগ্ধপান করেছে । তাই সেই অবস্থায় তিনি কোন কিছু পদক্ষেপ নিতে পারেনি । কিন্তু ৬ মাস পর থেকে তিনি নিজের ছন্দে ফিরে এসেছেন । বিভিন্ন যোগাসন ও ব্যায়াম করার পর তিনি তার আবার পুরনো অবস্থা ফিরে পেয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে । তিনি বলেছেন যে নিজেকে সঠিক রাখায় সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ কাজ। ইতিমধ্যে তার এই রূপান্তর দেখে রীতিমত অ-বাক নেটিজেনরা । তার এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র এসেছে অনেক মন্তব্য ।

Back to top button