জো-রে স্পি-ডে এগিয়ে আসছিলো ট্রেন, হটাৎ লাইনের মাঝে চলে এলো বড় হাতি, ঘটলো বড় বি’প-ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই পৃথিবীতে সব থেকে উন্নত জীব হচ্ছে মানুষ । মানুষ তার ক্রিয়া-কলাপ এর মাধ্যমে এবং বুদ্ধি এবং চিন্তাধারার মাধ্যমে জয় করেছে পৃথিবীর প্রতিটি স্থানের অসম্ভব কিছু জায়গা কে । ইন্টারনেট ব্যবস্থা থেকে শুরু করে জলপথ আকাশ পথ থেকে শুরু করে স্থলপথ সবকিছুতেই বিরাজ করছে এখন পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ জীব মানুষ । কিন্তু কখনও কখনও এই মানুষ ভুলে যায় তার মানবিকতা কে । আবার কখনো এমন কিছু ঘটনা নজরে আসে যা গভীরভাবে প্রতিষ্ঠা করে মানুষের মানবিকতা কে ।

এর পাশাপাশি আমরা প্রতিদিন সোশ্যাল মিডিয়ার দরুন এমন বেশ কিছু ধরনের ঘটনা খবর শুনে থাকি যেগুলো রীতিমতো আমাদেরকে ভাবিয়ে তোলে বারবার । তার পাশাপাশি এই স-মাজ এত জ-ঞ্জালে পরি-ণত হ-চ্ছে প্রতিদিন যে সেখানে প্রা-ণ খুলে- নিঃ-শ্বাস নেবার উপায় নেই । চারিদিকে খু-ন ধ-র্ষ-ণের ঘটনা প্রায় উঠে আসছে সোশ্যাল মিডিয়াই । রীতিমতো আবর্জনা তে পরিণত হয়েছে আমাদের আশেপাশে এই সমাজ । কিন্তু এর মাঝে বেঁচে আছে মানবিকতা এবং মনুষত্ব। এই ঘটনার তার প্রমাণ।

আমরা দেখেছি যে হাতির প্র-কাণ্ড শ-ক্তি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কাজে লেগেছে । উপকৃত হয়েছে মানুষ । কোন বি-প-দগ্র-স্ত মানুষকে সাহায্য করতে পিছুপা হয়না হাতি । এই ঘটনা প্রমাণ আমরা তামিলনাড়ু বা কেরলের দিকে বেশি লক্ষ্য করে থাকব । কারণ তাদের কাছে হাতি মানে এক দেবতার সমান । কিন্তু কখনো কখনো যদি সেই হাতি বি-পদ-গ্র-স্ত হয়ে পড়ে বা আ-ঘা-তপ্রা-প্ত হয় তাহলে কি কোন মানুষ এগিয়ে আসে তাকে সাহায্যের জন্য? অবশ্যই আসে কারণ এই ঘটনা সেই চিত্র তুলে ধরেছে ।

রেললাইনের ধারে থাকা একটি হাতি ট্রে-নের ধা-ক্কায় ব্যা-পক পরিমাণে আ-ঘাত-প্রা-প্ত হয়েছে এবং তার পাশে থাকা একটি জ-লা-শয়ের মধ্যে প-ড়ে র-য়েছে বেশ কিছুক্ষণ ধরে । সেটি নজরে আসে সেখানকার গ্রামবাসীরা । তারা বিন্দুমাত্র দেরি না করে তৎক্ষণাৎ খবর দেয় বনদপ্তর আধিকারিকদের কে ।বেশ কিছুক্ষণের মধ্যেই সেখানে উপস্থিত হয় বিভিন্ন ডা-ক্তার ও বনদপ্তর আধিকারিকরা ।তারা পরিস্থিতি বুঝে সেই হাতিটিকে ও-ষুধপত্র দিতে শুরু করে । এবং জল থেকে তুলে আনার চেষ্টা করে ।

কিন্তু সে এতটাই পরিমাণে আ-ঘা-তপ্রা-প্ত ছিল যে উঠে দাঁড়াবার ক্ষমতাও ছিল না তাঁর । অবশেষে তাদের তৎপরতাতে নিরাপদ একটি জায়গাতে হাতিটিকে রাখা হয় এবং প্রতিনিয়ত ও-ষু-ধপত্র দেওয়া হয় যাতে খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠে । হয়তো এই সমস্ত কারণের জন্যই আমরা আমাদের এই জ-ঞ্জাল যু-ক্ত সমাজে প্রা-ণ খু-লে নিঃ-শ্বাস নি-তে পারি । আরো একবার বিশ্বাস করতে পারি মানুষের মানসিকতা কে।

Back to top button