“আমাকে নিয়ে লোকজন ট্রোল করছে মানেই আমি স্টার!”, মহিষাসুর সেজে হাসির পাত্র হওয়ায় মুখ খুললেন অভিনেতা সৌরভ

নিজস্ব প্রতিবেদন: গতকাল মহালয়া উপলক্ষে স্টার জলসা চ্যানেলের বিশেষ অনুষ্ঠানে মহিষাসুর রূপে দেখা গিয়েছিল অভিনেতা সৌরভ দাস কে। একদিকে যেমন সৌরভ অনুরাগীদের মধ্যে তা নিয়ে উন্মাদনার শেষ ছিল না; ঠিক তেমনভাবেই নেটিজেনদের একাংশ কিন্তু প্রমো ভিডিও দেখার পর থেকেই সৌরভকে কটাক্ষ করতে শুরু করে দিয়েছিলেন।

‘তালপাতার সেপাই’, ‘দেখলেই হাসি পাচ্ছে’, ‘গাঁজাখোর’— মহিষাসুররূপী সৌরভ দাস প্রকাশ্যে আসা মাত্রই উড়ে এসেছিল একের পর এক মন্তব্য। প্রসঙ্গত বর্তমানে বড় পর্দা আর ওয়েব সিরিজ ছাড়া ক্যামেরার সামনে কিন্তু আর দেখা যায় না সৌরভকে। মহালয়া উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই আবারো ছোটপর্দায় পা রেখেছেন সৌরভ। কিন্তু পা রেখেই তাকে দর্শকদের একাংশের তীব্র কটাক্ষের মধ্যে পড়তে হলো।

এবারে এই সমস্ত কটাক্ষের উপরে একেবারে সপাটে জবাব দিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেতা সৌরভ দাস। অভিনেতার কথায়, “সত্যি কথা এখন এই কথাগুলো আমি খুব উপভোগ করি। অনেক দিন ট্রোল হইনি, তাই ভাবছিলাম কবে আবার কী নিয়ে কথা হয়? আর এখন তো টিআরপি-র যুগ। আমাকে নিয়ে লোকজন হাসাহাসি করছে মানেই আমি স্টার”।

এরপর নিজের বক্তব্যে আরও যোগ করে সৌরভ বলেন, “আমি লিক্যুইড ডায়েটে আছি। তাই স্টারকে (জলসা) বলেছিলাম আমায় কি মানাবে? তবে ওরা যে ভাবে পুরো বিষয়টা সাজিয়েছে, তা না দেখলে মানুষ বুঝবে না যে কেন আমায় তথাকথিত মহিষাসুরের মতো দেখাচ্ছে না। আমি খুব খুশি সবাই আমায় নিয়ে কথা বলছে।”

অন্যদিকে এখন অভিনয়ের পাশাপাশি পুজোর আগে নতুন রেস্তোরা খুলেছেন সৌরভ দাস।তাঁর নতুন পার্টনার অভিনেতা সব্যসাচী চৌধুরী। আপাতত নিজের ব্যবসার কাজ নিয়েই মজে তিনি। পুজোর পর এসভিএফ-এর নতুন ছবির কথা চলছে। সবকিছু যদি ঠিকঠাক অবস্থায় থাকে তাহলে বছরের শেষের আগেই শুরু হয়ে যাবে সৌরভ দাস অভিনীত ওয়েব সিরিজ মন্টু পাইলটের সিজন 3 এর শুটিং।

এর প্রথম প্রথম সিরিজটি বিশেষভাবে জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল দর্শকদের মধ্যে। যদিও দ্বিতীয় সিজনে কিন্তু আর নিজের আধিপত্য বজায় রাখতে পারেনি মন্টু পাইলট। মন্টু পাইলট এর প্রথম সিজনে অভিনয় করেছিলেন সৌরভ দাস আর অভিনেত্রী সোলাঙ্কি রায়। এছাড়াও কাঞ্চন মল্লিক, চান্দ্রেয়ী দত্ত সহ আরো অনেক অভিনেতাদের দেখা গিয়েছিল। এই ওয়েব সিরিজটির নির্দেশনা করেছিলেন দেবালয় ভট্টাচার্য।

Back to top button