“সকলকে বোকা বানায় দিদি নং 1!” – সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিও ক্লিপিংস নিয়ে বাধলো তুমুল বিতর্ক! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-আমরা জানি যে প্রতিনিয়ত জীবনের সংগ্রাম করতে হয় । সংগ্রাম ছাড়া জীবনে নিজের অস্তিত্বকে টিকিয়ে রাখা সম্ভব হয়না । তবে মানুষের সাথে পশু পাখি বা জ-ন্তু জা-নোয়ারের লড়াই সেটি পরিষ্কারভাবে দেখা যায় আমাদের এই পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবন এলাকায় । যেখানে প্রতিনিয়ত বাঘের ভয়ে ভী-ত স-ন্ত্রস্ত হয়ে থাকে এলাকাবাসীরা ।সেখানে মাঝেমধ্যেই ল-ড়াই করে নিজের প্রাণ ফিরিয়ে আনার ঘটনা দেখা গেছে ।

সেই ঘটনা নিয়ে দিদি নাম্বার ওয়ান উপস্থিত ছিলেন সুন্দরবনের বাসিন্দা জ্যোৎস্না। দিদি নাম্বার ওয়ান বিগত ১০ বছর ধরে জনপ্রিয় একটি রিয়েলিটি শো । এই রিয়েলিটি শোয়ের সঞ্চালিকা রচনা ব্যানার্জি । দীর্ঘ দিন ধরে কাজ করার জন্য মানুষের অন্তরে গেঁথে গেছে তার চিত্র। তাই এই জায়গাতে অন্য কাউকে দেখতে অভ্যস্ত নন দর্শকরা । কিন্তু কখনো কখনো জীবনে এমন কিছু ধরনের ঘটনা তুলে ধরত ভ-য়ঙ্কর এবং ম-র্মান্তিক এই ঘটনায় তথ্য তুলে ধরে বারংবার ।

তবে অনেকের মতে এটি সম্পূর্ণ মিথ্যে ও সাজানো । তাই সেটা নিয়ে শুরু হয়েছে হাসি ঠাট্টা মশকরা ট্রল । কি ঘটেছিল সেটা নিজের মুখে জানালেন দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চে জানালেন তিনি । যা শুনে রীতিমত অবাক রচনা ব্যানার্জি নিজের । সুন্দরবনের জ্যোৎস্নাকে বলতে শোনা গিয়েছে, বাঘটা লাফ দিয়ে তাঁর স্বামীর ডান কাঁধের ওপর বসে। আর জ্যোৎস্নাও লাফ দিয়ে চলে যায় পিছনে। আঙুল বাঘের কানের ভিতর ঢুকিয়ে জোর করে টেনে এনেছেন। জ্যোৎস্নার কথায়, ‘আমি ভেবেছি মরতে হলে দু’জনেই মরব’!

অসম সাহসী এই মহিলার ল-ড়াইয়ের গল্প শুনে স্তব্ধ হয়ে যান শো-র হোস্ট রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ও । চ্যানেলের তরফ থেকে এই প্রোমো শেয়ার করা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় । ভিডিওয় দেখা যায় জ্যোৎস্নার স্বামীর ডান হাত জামার মধ্যে নেই। তাই এনেকেই বলেন, কাটা হাতের মিথ্যে গল্প বানিয়ে দর্শককে বোকা বানানো হচ্ছে। কারণ, জামার তলা দিয়ে বেরিয়ে রয়েছে সই হাতটাই। যদিও, আসলে গল্প আলাদা। চ্যানেলের তরফ থেকে দাবি করা হয়নি হাত কাটা গিয়েছে। বরং, জ্যোৎস্না জানিয়েছেন তাঁর স্বামীর হাত অবশ হয়ে গিয়েছে।যার ফলে সেই ফেসবুকের পেইজ পূরণ করতে গিয়ে নিজেই সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছে।

Back to top button