রেললাইনের ট্র্যাক চেঞ্জ করতে গিয়ে ভ’য়ঙ্কর বি’ষাক্ত কো’বরা সা’পের মুখোমুখি হলেন গার্ড! ঘটলো চ’রম বি’পত্তি! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের আশেপাশে এমন অনেক মানুষ রয়েছে যারা তাদের কাজের প্রতি অত্যন্ত সিরিয়ার থাকে। অর্থাৎ নিজের কাজটুকু তারা দায়িত্ব সহকারে পালন করে চলে । যার ফলে হয়তো অনেক সময় অনেকের উপকার হয় । আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে যে ঘটনাটি সম্পর্কে আপনাদেরকে বলতে চলেছি সেই ধরনের কিছু একটা চিত্র তুলে ধরে । যেখানে একটি রেল কর্মীর জীবন কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে ।

রেলের গ্রুপ-ডি কর্মীদের এমন কিছু ধরনের কাজকর্ম থাকে যেগুলো তারা হয়ত সময় মতো না করলে যেকোনো ধরনের বড় ছোরা বিপদ ঘটে যেতে পারত । কিন্তু কাজের প্রতি অবিচল থেকে এবং দায়িত্ববোধ থেকে ওই রেলকর্মী এই ধরনের কাজ করেছে যার ফলে বেঁচে গেছে হাজার হাজার যাত্রীর প্রাণ । কিন্তু তাদের জীবন কাহিনী শুনলে আপনারা হয়তো কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়বেন ।

কারণ তাদের বাড়ি আছে তাদেরও ঘর আছে তাদেরও ইচ্ছে আছে কিন্তু সেই সমস্ত কিছুকে বিসর্জন দিয়ে শুধুমাত্র একনাগাড়ে কাজ করে যায় ভারতীয় রেলের জন্য ।  ঠিক সেরকমই একটি ঘটনা সম্প্রতি উঠে এসেছে ইউটিউব এর মাধ্যমে যেটা শুনলে বা দেখলে আমি নিশ্চিত যে আপনি আবেগপ্রবণ হয়ে উঠবেন । সম্প্রতি ইউটিউব একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে দক্ষিণ ভারতের কোন একটি রেলকর্মীর জীবন তুলে ধরা হয়েছে ।

হঠাৎ একদিন সে রেললাইনের ট্রাকে কাজ করতে গিয়ে দেখে যে তার পায়ের সামনে বি-ষধর একটি এসে উপস্থিত হয়েছে ।  এবং সে তাকে ছোবল মারার জন্য উদ্যোগ নিচ্ছে । অপরদিকে দুরন্ত গতিতে ছুটে আসছে হাজার যাত্রী বোঝাই করা একটি ট্রেন । কিন্তু সে যদি তৎক্ষণাৎ ট্রেনের ট্র্যাক চেঞ্জ না করে তাহলে চলে যাবে একসাথে হাজার মানুষের প্রাণ। ঠিক সেই মুহুর্তে তার মধ্যে মন এবং মস্তিষ্কের ব্যাপক পরিমাণে ল-ড়াই হয়েছিল ।

কি করবেন তিনি সেই অবস্থায় দাঁড়িয়ে তা খুঁজে পাচ্ছিলেন না ।  অবশেষে তিনি ভাবলেন যে যদি সা-পটাকে ছো-বল মা-রে তাহলে তার একার প্রাণ যাবে কিন্তু সে যদি লাইনে ট্র্যাক চেঞ্জ না করে তাহলে চলে যাবে অনেকের প্রাণ । কাজেই তিনি তার নিজের কর্তব্যের প্রতি অবিচল রইলেন । এবং নিজের কাজে লেগে রইলেন । যখন ট্রেনটি সামনে এলো তখন ট্রেনের আওয়াজ পেয়ে সাপটি তাকে আর ছো-বল নামের অন্য দিকে চলে গেল । এই ধরনের ঘটনা গু-লি এবং এই ধরনের মানুষগুলো আমাদের সমাজে আছে বলে আজও সমাজ বসবাসযোগ্য হয়ে ওঠে ।

Back to top button