নতুন করে আবার ঢুকতে শুরু করেছে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা! দেখে নিন কাদের নাম থাকবে এই লিস্টে!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- একুশের নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি জনপ্রিয় প্রকল্প ছিল দুয়ারে সরকারের অন্তর্গত লক্ষীর ভান্ডার। ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের জন্য রাজ্যের কয়েক লক্ষ মহিলা আবেদন করেছেন।ওয়াকিবহাল সূত্রের খবর অনুযায়ী এখনো পর্যন্ত প্রায় 1 কোটি 80 লক্ষ্য ফর্ম জমা পড়েছে। যদিও সেই আবেদন গুলি সম্পূর্ণরূপে যাচাই করা সম্ভব হয়নি এখনো। সম্প্রতি কারা টাকা পাবেন এবং পাবেন না তা নিয়ে ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন এর কাজ চলছে।

জানা যাচ্ছে এই প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকার ইতিমধ্যেই 2 কোটি 48 লাখ 60 হাজার টাকা বরাদ্দ করেছে। ইতিমধ্যেই এই টাকা সমস্ত জেলা শাসকের অফিসে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। খুব শীঘ্রই এর বিতরণ কাজ শুরু হবে। রাজ্যের বিভিন্ন জেলার জন্য এই প্রকল্পে আলাদাভাবে টাকা বরাদ্দ করেছে নবান্ন। দক্ষিণ 24 পরগনার জন্য এই খাতে বরাদ্দ করা হয়েছে 29 লাখ 81 হাজার টাকা। জলপাইগুড়ির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে 4 লাখ 77 হাজার।

অপরদিকে মালদহের জন্য 10 লাখ 71 হাজার, পশ্চিম বর্ধমানের 10 লক্ষ 28 হাজার, পশ্চিম মেদিনীপুরে 14 লক্ষ 27 হাজার, পুরুলিয়ার 6 লাখ 91 হাজার, দার্জিলিং 4 লক্ষ 69 হাজার এবং হুগলির জন্য 13 লক্ষ 65 হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এবার আসা যাক এই টাকা কবে থেকে মহিলাদের একাউন্টে পাঠানো হবে সেই বিষয় নিয়ে।প্রসঙ্গত যারা আগস্ট মাসে এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করেছিলেন তাদের কাছে খুব সম্ভবত সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে বা অক্টোবরের শুরুতে একটি এসএমএস এসছে।

এটি সেই মহিলাদের অ্যাপ্লিকেশন আইডি।এই এসএমএস যেসব মহিলাদের ফোন নম্বরে চলে এসেছে তারা খুব শীঘ্রই সম্ভবত পুজোর আগে এই প্রকল্পের টাকা পেয়ে যাবেন।কিন্তু এখনও পর্যন্ত যাদের ফোনে কোন রকম ভেরিফিকেশন নাম্বার এসএমএস আসেনি তাদের টাকা পেতে একটু দেরি হবে। সুতরাং চিন্তার কোন কারণ নেই। আরেকটি বিষয় জানিয়ে রাখি, পুজোর পর নভেম্বরে যেসব জায়গায় বিধানসভা উপনির্বাচন রয়েছে সেসব জায়গাগুলির মহিলারা একসাথে সেপ্টেম্বর এবং অক্টোবর মাসের টাকা পেতে চলেছেন। কারণ আদর্শ নির্বাচন বিধি লাঘু থাকায় এই মুহূর্তে তাদের প্রকল্পের টাকা দেওয়া সম্ভব নয়।

Back to top button