রান্নাঘরে রান্না করছিলেন যুবতী, হ-টাৎ গ্যাস সিলিন্ডারের পিছন থেকে বেরিয়ে এলো সা’প, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোশ্যাল মিডিয়াতে আমরা কখনো কখনো এমন কিছু ধরনের ঘটনা দেখে থাকি যেগু-লি আমাদেরকে অ-বাক করে তোলে । তার পাশাপাশি করে তোলে হ-ত-ভ-ম্ব ।এই সমস্ত ঘটনাবলি আগেকার যুগের বিরল ঘটনা হলেও প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে আমাদের সামনে উঠে আসার ধরুন এই ঘটনাগুলো কিন্তু আমাদের কাছে নিত্য প্রয়োজন প্রতিদিন সহজাত ঘটনায় পরিণত হয়েছে । এই ঘটনা যেন তারই প্রমাণ । সাধারণত দিনে-দুপুরে সাপের কথা শুনলে আমরা আ-ত-ঙ্কি-ত হ-য়ে প-ড়ি ।

কারণ সা-পের বি-ষ যদি কোনো কারণে শরীরের মধ্যে প্রবেশ করে তাহলে হয়তো আর মানুষকে ফিরিয়ে আনা যায় না । কখনো কখনো এমন ঘটনা দেখা গেছে এ সা-পের এক ছোবলে মুহূর্তের মধ্যে প্রা-ণ হারি-য়েছে অনেক ব্যক্তি । আগেকার যুগে এই ধরনের ঘটনা বেশি ঘটছে । কারণ তখন ছিল না কোনো হা-স-পা-তাল বা উন্নত চিকি-ৎসা ব্যবস্থা বর্তমানে তা অনেকাংশে কমে এসেছে । এই সা-পের কথা বলতে গেলে যে কথাটি না বললেই নয় যে সা-পের বি-ষ যদি শরীরে কোনো কারণে প্রবেশ করে

এবং যদি আমরা সঠিক উপায়ে কম সময়ের মধ্যে হাসপাতালে সেই ব্যক্তিকে নিয়ে যেতে পারি তাহলে কিন্তু বেঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি পরিমাণে অর্থাৎ অধিক পরিমাণে । কিন্তু যেহেতু আমরা অনেকেই কু-সং-স্কারের দ্বারস্থ এখনো অব্দি তাই সা-পে কা-ম-ড়ালে এখনো অনেক গ্রামেগঞ্জে ও-ঝা দি-য়ে ঝা-ড়-ফুঁ-ক ক-রা হ-য় ।যার ফলে অনেক দেরি হয়ে যায় এবং সেই ব্যক্তি বা মহিলাকে বা যাকে সা-পে কা-ম-ড়েছে তার মৃ-ত্যু ঘ-টে সেখানেই । কাজে এই ধরনের কাজ থেকে আমাদের বিরত থাকতে হবে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে ভিডিওটি প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে একটি বাড়ির রান্না ঘরে লু-কিয়ে ছিল বি-ষাক্ত কো-বরা সা-প ।

যেখানে গ্যাস সিলিন্ডার রাখা থাকে ঠিক তারই পাশে একটি ছোট্ট জায়গাতে লু-কিয়ে ছিল সেই কো-বরা সা-প যা দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে সেই ঘরের বাসিন্দারা । তারা ভেবে কূলকিনারা পাচ্ছিলেন না যে কি করবেন । তখন তারা স্থানীয় এক সা-পুড়ে কে খবর দেয় ।বেশ কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে উপস্থিত হয় প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সা-পুড়ে ।তিনি জানান যে সাপটির নাম কো-বরা সা-প এবং সে প্র-চন্ড প-রিমাণে রে-গে র-য়েছে ।

যার ফলে যেকোনো সময় যেকোনো মা-নুষকে ছো-বল মা-রতে পা-রে । আর এই ধরনের সা-প খুব ভালো করে জানে যে মানুষের কোথায় ছো-বল মা-রলে তার কাজ তাড়াতাড়ি হয় । অবশেষে অনেক রকম চেষ্টাচরিত্র করার পর সেই সা-পুড়ে সা-প থেকে ধরে নিয়ে চলে যায় নিরাপদ কোন জায়গায় ছেড়ে দেবে বলে ।তার পাশাপাশি যে আ-তঙ্ক ছ-ড়িয়ে ছি-ল গোটা পরিবারের তা কিছুটা কমতে শুরু করে সময়ের সাথে সাথে ।ইতিমধ্যে ভিডিও ধীরে শুরু হয়েছে উ-ত্তে-জনা এবং টান টান পরিবেশ ।

Back to top button