পরিবারের কতজন লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন? স্বাস্থ্য সাথী কার্ড না থাকলে কি হবে? জেনে নিন!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা প্রত্যেকেই জানি যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি সূচনা করেছে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প । এই লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের মাধ্যমে জেনারেল কাস্ট এর মহিলারা মাসিক ৫০০ টাকা এবং অন্যান্য কাস্টের মহিলারা মাসিক ১০০০ টাকা করে সরকারি অনুদান পাবে । সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষের বলাবাহুল্য মহিলারা যাতে সামনের সারিতে উঠেছে স্বাবলম্বী হতে পারে তার জন্য এই গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি বা প্রকল্পের সূচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

নবান্ন ঐদিন হওয়া বৈঠক থেকে জানা যাচ্ছে যে আগামী ১৬ ই আগস্ট থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত চলবে দুয়ারে সরকার কেন্দ্র সরকার ক্যাম্পে গিয়ে আবেদনপত্র জমা দিলেই নাম নথিভুক্ত করা যাবে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পে । এবং এর জন্য বিশেষ কোনো কিছুর প্রয়োজন নেই । তার যেসব মহিলারা পাবেন ।তবে সাধারণ বা জেনারেল কাস্ট মহিলাদের জন্য ৫০০ টাকা করে প্রতিমাসে এবং অন্যান্য জাতির জন্য হাজার টাকা করে প্রতিমাসে অনুদান দেবে রাজ্য সরকার ।

৬০ বছর পর্যন্ত যে কেউ আবেদন করতে পারবেন এই প্রকল্পে। ১ সেপ্টেম্বর থেকেই টাকা দেওয়া হবে। ২৫ থেকে ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত সব মহিলাই এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন। তার পাশাপাশি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে এ ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড অবশ্যই থাকা বাঞ্ছনীয় । কিন্তু সম্প্রতি লক্ষী ভান্ডার নিয়ে পুনরায়এক নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করল রাজ্য সরকার সাধারণ মানুষের মনে প্রশ্ন ছিল যে একটি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড দিয়ে কতজন মানুষ অর্থাৎ

পরিবারে কতজন মহিলা নাম নথিভুক্ত করতে পারবে । সে ব্যাপারে তাদের কাছে ছিলনা কোন উত্তর তবে সম্প্রতি রাজ্য সরকার একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে যে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে যে একটি পরিবারের একটি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড দিয়ে পরিবারের সকল মহিলার নাম নথিভুক্ত করা যাবে ।

Back to top button