বৃদ্ধ ভাতা- বিধবা ভাতা যেভাবে বাড়িতে বসেই ৫ মিনিটে আবেদন করবেন, রইল স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- রাজ্য সরকার প্রতিনিয়ত একের পর এক জনহিতকর কাজ কর্ম করে চলেছে । এবং এই কাজ কর্মের ফলে যে সমস্ত কর্মসূচী বা প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে তার মাধ্যমে উপকৃত হচ্ছে রাজ্যের প্রতিটি বাসিন্দারা । ঠিক তেমনি যেমন মুখ্যমন্ত্রী কিছুদিন আগে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর প্রচলন করেছিলেন । তেমনই বেশ কিছুদিন আগে প্রচলন করেছিলেন স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের । স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর আওতায় এসে প্রচুর মানুষ বিনামূল্যে চিকিৎসা পেয়েছে এবং চিকিৎসার টাকা খরচ বহন করেছে রাজ্য সরকার ।

শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ নয় বাইরের বেশ কয়েকটি হাসপাতাল রয়েছে এর ব্যবস্থা আছে । কিন্তু আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন যে বহুৎ বছর আগেই বৃদ্ধ ভাতা প্রতিবন্ধী ভাতা এবং বিধবা ভাতা সূচনা করেছিল রাজ্য সরকার । এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিনিয়ত সে ব্যাপারে ওয়াকিবহাল যে এই রাজ্যের প্রতিটি মানুষ অর্থাৎ যারা বৃদ্ধ ভাতা বিধবা ভাতা ও বার্ধক্য ভাতার অন্তর্ভুক্ত তারা সবাই এই সুবিধা সুযোগ পাচ্ছে কিনা ।

তোএবারে পুনরায় দ্বিতীয় পর্যায়ে দুয়ারে সরকার অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আগামী ১৬ আগস্ট অর্থাৎ আগামীকাল থেকে । এবার আজকের প্রতিবেদন আপনাদেরকে জানাবো যে আপনি কিভাবে বৃদ্ধ বৃদ্ধ ভাতা বিধবা ভাতা বা বার্ধক্য ভাতার জন্য আবেদন করতে পারবেন । নারী সুরক্ষা দপ্তর পশ্চিমবঙ্গ সরকার এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে এই আবেদনপত্রটি আপনি পেয়ে যাবেন । আবেদনপত্রটি হাতে নেওয়ার পর আপনি দেখবেন যে প্রথমেই ডান দিকে একটি ছবি দেওয়ার জায়গা আছে । সেখানে আপনাকে পাসপোর্ট সাইজের আপনার রঙিন ছবি এটাচ করতে হবে অর্থাৎ যুক্ত করতে হবে ।

এবং তার নিচে আপনার স্বাক্ষর থাকা বাঞ্ছনীয় । তার পাশাপাশি আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি যে এই একটা আবেদন পত্রের মাধ্যমে আপনারা কিন্তু তিনটি প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন । প্রথমেই দেখবেন দেওয়া আছে যে আপনি কিসের জন্য আবেদন করতে চাইছেন । বৃদ্ধ ভাতা বার্ধক্য ভাতা নাকি প্রতিবন্ধী ভাতা । আপনি যেটার জন্য আবেদন করতে চাইছেন শুধু সেখানে রাইট চিহ্ন দেবেন । এরপরে পুরা আবেদনপত্রটি আপনার কাছে সহজ এবং সরল হয়ে যাবে ।

কারণ সেখানে বিশেষ কোনো তথ্য চাওয়া হয়নি যেটা আপনার বুঝতে অসুবিধা হবে । চাওয়া হয়েছে আধার কার্ডের নাম্বার ভোটার কার্ডের নাম্বার । আপনার নাম আপনার পরিবারের সদস্যের নাম মোবাইল নাম্বার ইত্যাদি যাবতীয় তথ্য । সেই সমস্ত তথ্য পূরণ করে আপনি এই আবেদনপত্রটি দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে জমা করতে পারেন । তার পাশাপাশি আপনি যদি আগে এই সমস্ত প্রকল্পের সুবিধা পেয়ে থাকেন তাহলে আবার পুনরায় পুনর্নবীকরণ করতে পারেন এই আবেদন পত্রের মাধ্যমে ।

Back to top button