পোস্ট অফিসে বই থাকলে দারুণ সুখবর আপনার জন্য, মিলবে প্রচুর পরিমাণে ফ্রিতে টাকা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যত সময় যাচ্ছে ততই পাল্টাচ্ছে মানুষের ভাবনা চিন্তা । কারণ আগেকার যুগে মানুষ ভাবতো যে ব্যাংক হচ্ছে সব থেকে নিরাপদ একটি সংস্থা । সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে মানুষ সারা বছরের বরং কি সারা জীবনের উপার্জন জমা রাখত । কিন্তু তারপরও দেখা গেছে ব্যাংক ডা-কাতি বা জা-লি-য়াতির মত ঘটনা । যার ফলে মানুষের আস্থা ভরসা বিশ্বাস হারিয়ে যাচ্ছে তার উপর থেকে প্রতিনিয়ত । এর পাশাপাশি যাবতীয় কঠিন নিয়ম গু-লি আ-বদ্ধ করে দিচ্ছে তাদের গ্রাহকদেরকে ।

যার ফলে যেমনটা জন্য তারা টাকা রেখেছিলেন ব্যাংকে ঠিক তেমনটা সুবিধা পাচ্ছেন না কিন্তু সে ক্ষেত্রে বাজার ধরেছে পোস্ট অফিস। আমরা শুধু আগে জানতাম যে যে সমস্ত জায়গাতে ব্যাংকিং ব্যবস্থা পৌঁছাতে পারেনি সেই সমস্ত জায়গায় পৌঁছেছে পোস্ট অফি স ।কিন্তু বর্তমানে এর সংজ্ঞা টা সম্পূর্ণ আলাদা । কারণ এখন শহর অঞ্চলের থেকে শুরু করে গ্রামাঞ্চলের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছে পোস্টঅফিস । তার সাথে সাথে বেড়েছে এর জনপ্রিয়তা এবং বিশ্বাস নির্ভরযোগ্যতা ।

এর পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের লো-ভনীয় অফার দিয়ে গ্রাহকদেরকে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করছে পোস্ট অফিস গু-লি । সম্প্রতি পোস্ট অফিস একটি নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ।কাজেই আপনার যদি পোস্ট অফিসে অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তাহলে এই সুখবর হতে পারে আপনার জন্য । সম্প্রতি পোস্ট অফিসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে সুদের হার সংক্রান্ত একটি বিষয় । যেখানে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক সুদের হার ৪ শতাংশের নীচে নামিয়ে দিয়েছে ।

সেখানে কিন্তু এই দুর্মূল্যের বাজারে পোস্ট অফিস সুদের হার সেভিংস একাউন্ট এর ক্ষেত্রে ৪ % ধরে রেখেছে। বর্তমানে কঠিন পরিস্থিতির কথা ভেবে বাড়ানো হয়েছে প্রতিদিনের সর্বোচ্চ টাকা তোলার পরিমাণ । আগে যেখানে ৫০০ টাকা সর্বোচ্চ তোলা যেত এখন সেটা পোস্ট অফিস থেকে এখন সেখানে কুড়ি হাজার টাকা তোলা যাবে । পোস্ট অফিসে সেই বিজ্ঞপ্তি জা-রি করা হয়েছে যে দিনে ৫০ হাজারের বেশি টাকা ডিপোজিট করা যাবেনা।

পোস্ট অফিসের তরফ জানানো হয়েছে যে আপনার অ্যাকাউন্ট যদি থেকে থাকে তাহলে হাজার হাজার টাকা আপনাকে নতুন ব্যালেন্স হিসেবে রাখা হবে না বরং ৫০০ টাকা রাখলে কাজ চলবে । কোন কারনে যদি আপনার ৫০০ টাকা ও না থাকে একাউন্টে তাহলে ১০০ টাকা করে জরিমানা কাটা হবে । যা অন্যান্য ব্যাংকের জন্য যথেষ্ট পরিমাণে কম ।

Back to top button