মহিলা পুলিশকে বা’জে কথা বলে স্কুটি নিয়ে পা’লাচ্ছিলেন দুই মহিলা, দৌ’ড়ে ধ’রে সা-জা দিলেন মহিলা পুলিশ, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বর্তমান যুগে পৃথিবীর যেকোন মানুষের যেকোনো ধরনের প্রতিভা বন্দি আমাদের এই মুঠোফোনে । কারণেই মুঠোফোন একমাত্র বাড়িতে বসে থাকা অবস্থায় আমাদেরকে ঘুরিয়ে আনতে পারে গোটা পৃথিবীতে । পৃথিবীর আ-নাচে-কা-নাচে যাবতীয় যা ঘটনা তা শুধুমাত্র পেয়ে যায় আমরা আমাদের স্মার্টফোনের মাধ্যমে । অর্থাৎ আমরা যে উন্নতির দিকে এগোচ্ছি তার প্রতি পদে পদে প্রমাণিত হচ্ছে । এবং এ প্রমাণিত হবার মূল কান্ডারী হলো স্মার্টফোন ও সোশ্যাল মিডিয়া।

সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই । কিন্তু আপনারা হয়তো সকলেই জানেন যে সোশ্যাল মিডিয়ার মানেই হচ্ছে নাচ-গান হাসি-কা-ন্না রা-গ অ-ভিমান সমস্ত কিছুর মিশ্রিত একটি মাধ্যম যা এক ছাদের নিচে একসাথে পাওয়া যায় । তাই সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিদিনই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে তরুণ প্রজন্মের কাছে । শুধুমাত্র তরুন প্রজন্ম নয় আমাদের আগের প্রজন্মের মানুষেরাও যুক্ত হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে। সাধারণত পুলিশের হাতে আইন রক্ষার দায়িত্ব থাকে ।

অর্থাৎ যদি কেউ কোনদিন আ-ইন বি-রুদ্ধে কোনো কাজকর্ম করে তাহলে তাকে উপযুক্ত শা-স্তি দেওয়ার দায়িত্ব থাকে পু-লিশের উ-পর । কিন্তু কখনো কখনো সেই পুলিশকর্মীদের এমন কিছু ধরনের আচরণ ক্যামেরা-ব-ন্দি হয় যা সৃষ্টি করে বড়োসড়ো প্রশ্নচিহ্ন । ঠিক তেমনই এই পু-লিশ-কর্মী বি-রুদ্ধে উঠেছে এমন এক গুরুতর অ-ভি-যোগ যা নিমিষেই উড়িয়ে দেওয়া যায় না । সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখানো হচ্ছে যে একটি রাস্তার ধারে পুলিশ রা বেশকিছু বাইক কে আটক করেছে এবং তাদের কাছ থেকে জরুরি নথিপত্র গু-লি দেখতে চাইছে ।

যারা দেখাতে পারছে তাদেরকে ছেড়ে দিচ্ছে আর যারা দেখাতে পারছে না তাদের ফাইন বা জ-রি-মানা নিচ্ছে । কিন্তু যে ব্যক্তি এই ভিডিওটি প্রকাশ এনেছে সে জানায় যে তার গাড়ি সমস্ত কিছু কাগজপত্র থাকা সত্ত্বেও তাকে পু-লিশ জো-র ক-রে জ-রি-মানা নি-চ্ছে । এমনকি তার চোখের সামনে ইচ্ছাকৃত ভাবে চেনা পরিচিতদের তারা ছেড়ে দিচ্ছে । অথচ তাদের কাছে নেই হেলমেট না আছে কোন গাড়ির কাগজপত্র । এই ধরনের অরাজকতা থেকে মুক্তি কিভাবে পাওয়া যায় সেই প্রশ্ন করেছে ওই ভিডিওর মাধ্যমে ওই যুবক । ইতিমধ্যে ভিডিওটি এখন তোলপাড় করেছে নেট দুনিয়াকে । প্রশ্ন উঠেছে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ।

Back to top button