চাল, ডিম এবং আলু দিয়েই বানিয়ে ফেলুন দারুণ সুস্বাদু এক পাকের এই রান্না! একবার খেলে ভুলতে পারবেন না! রইল রেসিপি।

নিজস্ব প্রতিবেদন:সামনেই বাঙালি সবথেকে বড় উৎসব দুর্গাপূজো। আর দুর্গাপুজো মানেই পেট পুজো। অনেকেই সাধারনত এই পুজোর মরশুমে ব্যস্ত থাকেন। নতুন জামা কাপড় কেনা থেকে শুরু করে অন্যান্য নানান ধরনের কাজ থাকে। তাই অনেক সময় দেখা যায় ঠিকভাবে খাওয়া-দাওয়া করা হয়ে ওঠে না।

তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আলোচনা করব অল্প সময়ের মধ্যে এক পাঁকে ঘরে থাকার চাল, ডিম আর আলু দিয়ে তৈরি একটি সুস্বাদু রান্নার রেসিপি। এই রেসিপিটি যেমন সহজ ঠিক তেমনই খেতে অসাধারণ। তাহলে আসুন আর দেরি না করে শুরু করা যাক।

প্রথমেই একটি পাত্রের মধ্যে পরিমাণমতো চাল নিয়ে নিতে হবে। এরপর ভালো করে চাল গুলিকে ধুয়ে নিতে হবে।একটি পাত্রের মধ্যে কয়েকটি আলু নিয়ে ডুমো ডুমো করে কেটে নিন। অপরদিকে তিন থেকে চারটি ডিম সেদ্ধ করে নিতে হবে। প্রাথমিক আয়োজন সম্পন্ন হওয়ার পর আলু এবং ডিম এরমধ্যে স্বল্প পরিমাণে নুন এবং হলুদ গুঁড়ো ছড়িয়ে ভালো করে মেখে নিন। কড়াইতে সরষের তেল গরম করে নিয়ে তাতে আলু এবং ডিম গুলোকে হালকা ভাজা ভাজা করে নিন। খুব একটা কড়া করে ভাজবেন না।

এবার ওই তেলের মধ্যেই কয়েকটি লবঙ্গ, ছোট এলাচ, দারচিনি, তেজপাতা এবং গোটা জিরে দিয়ে দিন। মসলাগুলিকে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করতে থাকুন। কিছুক্ষণ পর এতে পেঁয়াজ কুচি, টমেটো কুচি , অর্ধেক চামচ নুন, চিনি, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কার গুঁড়ো এবং সামান্য পরিমাণ ধনেপাতা ছড়িয়ে দিন। কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করার পর চাল গুলিকে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। মসলার সাথে চালগুলি ভালোভাবে মিশে গেলে কয়েক কাপ জল ঢেলে দিন।

এরপর কিছুটা পরিমাণ গরম মসলা ও কয়েকটি চেরা কাঁচা লঙ্কা ছড়িয়ে দিন রান্না টির মধ্যে।যতক্ষণ পর্যন্ত না জল কিছুটা শুকিয়ে আসছে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। সবশেষে কিছুক্ষণ ঢাকনা চাপা দিয়ে রেখে দিন। দেখবেন রান্নাটি সম্পূর্ণ জল টেনে নিয়েছে। ব্যাস এবার এই বিশেষ রেসিপিটি আপনারা গরম গরম পরিবেশন করতে পারেন।

Back to top button