‘খাস্তা কচুরি রেসিপি’, বানিয়ে ফেলুন ঘরোয়া সহজ পদ্ধতিতে, যার স্বাদ হয় দুর্দান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদন: খাস্তা কচুরির সাথে আলুর তরকারি কিন্তু বহুদিন ধরে একটি দুর্দান্ত কম্বিনেশন। সকালের জলখাবার হোক বা বিকেলের টিফিন সবকিছুতেই কিন্তু আপনারা খাস্তা কচুরি বানিয়ে নিতে পারেন। শিশু থেকে বয়স্ক সকলের এই রেসিপি খুবই পছন্দ হবে এবং একবার বানিয়ে খাওয়ালে কিন্তু বারবার খেতে চাইবে। একঘেয়ে জলখাবারের থেকে ভালোভাবে আপনারা খাস্তা কচুরি খুব সহজেই তৈরি করে নিতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে হলে আমাদের প্রতিবেদনের সঙ্গে থাকা ভিডিওটি আপনারা দেখে নিতে পারেন। চলুন তাহলে আর দেরি না করে কিভাবে খাস্তা কচুরি আর স্পেশাল আলুর তরকারি তৈরি করবেন সেই প্রসঙ্গে আলোচনা করা যাক।।

খাস্তা কচুরির প্রস্তুত প্রণালী:

এই দুটি খাবার তৈরির জন্য উপকরণ হিসেবে আমাদের প্রয়োজন হবে কয়েকটি সেদ্ধ আলু, ময়দা, পরিমাণ মতো সাদা তেল, মুগের ডাল, লঙ্কার গুঁড়ো, জিরের গুঁড়ো, বেসন, হলুদ গুঁড়ো, শুকনো লঙ্কা, গোটা জিরে, গোটা মৌরি, গোলমরিচ, আদা বাটা, ঘি, আমচুর পাউডার, জোয়ান এবং লবণ।

খাস্তা কচুরি তৈরি করার জন্য প্রথমেই আপনাদের ভালো করে ময়দা মেখে নিতে হবে। ময়দার মধ্যে সামান্য পরিমাণে জোয়ান ছড়িয়ে দিয়ে ভালো করে জল দিয়ে এটিকে আপনাদের মেখে নিতে হবে। মাখা হয়ে গেলে ময়দার উপরিভাগে আপনারা সাদা তেল হালকা করে লাগিয়ে দিতে পারেন। এবারে আপনাদের একটি বাটির মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ সময় পর্যন্ত ময়দা ঢাকা দিয়ে রেখে দিতে হবে। অন্যদিকে কড়াই গরম করে নিয়ে তার মধ্যে শুকনো লঙ্কা দিয়ে দিন।

এরপর ধীরে ধীরে আপনাদের গোটা জিরে গোটা ধনে এবং গোটা মৌরি দিয়ে ভালো করে ভেজে নিতে হবে। ভালো করে ভাজা হয়ে গেলে এই মসলাটিকে আলাদা পাত্রে তুলে রাখুন। এবারে কড়াইতে আরো কিছুটা পরিমাণ সাদা তেল দিয়ে দিতে হবে। এর মধ্যে গোটা জিরে এবং শুকনো লঙ্কা দিয়ে দিন। এর মধ্যে ধীরে ধীরে আপনাদের হিং আদা বাটা ও হলুদ গুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো এবং লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে।

অন্যদিকে আপনাদের সেদ্ধ আলুগুলিকে হাত দিয়ে ভালো করে মেখে নিতে হবে। আলু মাখা হয়ে গেলে কড়াইতে ভেজে নেওয়া মসলাতে আপনারা এটিকে ঢেলে দিন। মসলার সাথে নির্দিষ্ট কিছু সময় ধরে আপনাদের আলুগুলিকে কষিয়ে নিতে হবে। তারপর কিছুটা পরিমাণ জল ঢেলে যতক্ষণ পর্যন্ত না ভালো করে ফুটছে ততক্ষণ অপেক্ষা করতে থাকুন। অন্যদিকে যে ভাজা মসলা গুলি রেখেছিলেন সেগুলিকে আপনাদের শিলনোরার সাহায্যে বেটে নিতে হবে। দেখবেন সময়ের মধ্যে আপনার আলুর তরকারি তৈরি হয়ে গিয়েছে সামান্য ধনেপাতা ছড়িয়ে নামিয়ে নিন।

খাস্তা কচুরি তৈরি করার জন্য প্রথমেই কড়াইতে সাদা তেল গরম করে হিং আর বেসন দিয়ে ভালো করে ভেজে নিতে হবে। এরপর আলুর তরকারি তৈরি করার সময় যে মসলাটি ভেজে বেটে রেখেছিলেন সেটিকে এর মধ্যে দিয়ে দিন।। কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে এতে সামান্য পরিমাণ লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে কষিয়ে নিতে হবে। যতক্ষণ রান্নাটি কষানো হচ্ছে সেই সময়ের মধ্যে ঝটপট ভিজিয়ে রাখা মুগের ডাল ভালো করে বেটে রান্নার মধ্যে দিয়ে দিনব্যাস আপনাদের খাস্তা কচুরির জন্য পুর তৈরি হয়ে গেল। এবার ময়দা ভালো করে মেখে নেওয়া থেকে ছোট ছোট লেচি কেটে তার মধ্যে এই পূরগুলিকে ভরে লুচি বেলে নিতে হবে।

গরম গরম তেলে ভেজে নিলেই কিন্তু আপনাদের খাস্তা কচুরি এবং একেবারে স্পেশাল দুর্দান্ত স্বাদের আলুর তরকারি প্রস্তুত হয়ে যাবে।। আজকের এই রেসিপিটি আপনাদের কেমন লাগলো তা আমাদের প্রতিবেদনের কমেন্ট বক্সে অবশ্যই শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

Back to top button