“দেবশ্রীর সাথে বিচ্ছেদের পর টানা দেড় বছর নিজেকে ঘরবন্দি রেখেছিলাম”, পুরনো স্ত্রী দেবশ্রীর সাথে সম্পর্ক ঠিক করে নিতে চান অভিনেতা প্রসেনজিত

নিজস্ব প্রতিবেদন : বিগত প্রায় বহু বছর সময় ধরে ইন্ডাস্ট্রিতে একপ্রকার একছত্র রাজত্ব করে গিয়েছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ওরফে বুম্বাদা। টলিউড কে একের পর এক সুপারহিট চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন তিনি। অভিনয় জীবনে কিন্তু সবসময় একেবারে শীর্ষস্থানে থেকেছেন প্রসেনজিৎ। একের পর এক চলচ্চিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের হৃদয়ে পাকাপাকিভাবে খুব সহজেই জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি।

তবে অভিনয় জীবন যাই হোক না কেন ব্যক্তিগত জীবনে কিন্তু প্রসেনজিৎ কে নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সময়েই প্রথম জীবনে সহ অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় কে বিয়ে করেছিলেন তিনি। বলতে গেলে দেবশ্রী রায় কিন্তু তার ছোটবেলাকার প্রেমিকা ছিলেন। ১৯৯২ সালে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু সম্পর্ক মাত্র কয়েক মাসের বেশি টিকে থাকতে পারেনি। জানা যায় এই সময়ে ক্রমাগত দেবশ্রীর ক্যারিয়ারের সফলতা আসছিল। যা মেনে নিতে পারেন নি প্রসেনজিৎ।

অভিনয় ছেড়ে দিয়ে সন্তান ধারণ করে দেবশ্রীকে সুখে ঘরকন্না করার পরামর্শ দিয়েছিলেন বুম্বাদা। তবে তা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেননি অভিনেত্রী।। ফলস্বরূপ হয়তো বিচ্ছেদ ছাড়া আর উপায় ছিল না। তবে বিচ্ছেদের পর কিন্তু আর কখনো বিয়ে করেননি দেবশ্রী রায়। এদিকে নিজের জীবনে এগিয়ে গিয়েছেন প্রসেনজিৎ। দেবশ্রী কে ভুলে অপর্না গুহ ঠাকুরতাকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করেন তিনি।

কিন্তু তার এই বিয়েও খুব বেশিদিন পর্যন্ত টেকেনি। পরকীয়া সম্পর্ক এবং মতভেদের কারণে অপর্ণার সঙ্গে তার সংসার ভেঙে যায়। পরবর্তীতে তিনি অভিনেত্রী অর্পিতা পালকে বিয়ে করেন। বর্তমানে তাকে নিয়েই সুখের সংসার করছেন বুম্বাদা। তবে এই সবকিছুর মাঝেই কোথাও না কোথাও যেন দেবশ্রীর প্রতি তার ভালোবাসা রয়েই গেছে।

সম্প্রতি নিজের পরবর্তী ছবি কাছের মানুষের প্রচারে এসে পুরোনো দিনের বিভিন্ন ঘটনা শেয়ার করে নিয়েছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। অভিনেতা জানিয়েছেন দেবশ্রী সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে প্রায় দেড় বছর সময় পর্যন্ত নিজেকে একেবারে গৃহবন্দী করে ফেলেছিলেন অভিনেতা। বুম্বাদা আরও জানান যে, প্রাক্তন ও প্রথম স্ত্রী দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে নিজের বন্ধুত্বের সম্পর্ক ঠিক করে নিতে চান তিনি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য সব অভিনেতাই পেশাগত গণ্ডির বাইরে বেরিয়ে নিজেদের ব্যক্তিগত টানাপোড়েনের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলতে চান না। এতে গসিপ আরও বৃদ্ধি পায়। তবে এখন এইসব গোপন কথাকে প্রকাশ্যে নিয়ে আসাটা ছবির প্রচারের অঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে। টলিউড থেকে শুরু করে বলিউড এখন কিন্তু সব জায়গাতেই এই নতুন ট্রেন্ড ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়েছে।

অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় কে ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই আপনারা আজকের এই প্রতিবেদনটি শেয়ার করে নিতে পারেন। পাশাপাশি এই প্রসঙ্গে আপনাদের কোন মতামত থাকলে সেটাও কমেন্ট বক্সে জানানোর অনুরোধ রইলো।

Leave a Comment