হেঁশেলে সিলিন্ডারে কতটা গ্যাস রয়েছে বুঝবেন কিভাবে? জেনে নিন এই সহজ ও দুর্দান্ত ট্রিকস!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আজকাল বেশিরভাগ বাড়িতেই কিন্তু গ্যাস সিলিন্ডারের মাধ্যমে রান্নার কাজ হয়ে থাকে। তবে গ্যাসের সাহায্যে রান্না করার যেমন বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে ঠিক তেমনভাবেই রয়েছে কিছু অসুবিধাও। অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায় কোন কিছু বোঝার আগেই আচমকা গ্যাস শেষ হয়ে যায়। আসলে সিলিন্ডারের ভেতরে কতটা গ্যাস অবশিষ্ট রয়েছে সেটা বোঝা যেহেতু সহজ কাজ নয় তাই প্রায় সময় কিন্তু এই সমস্যা দেখা যায়। কেউ কেউ সিলিন্ডারের ওজন মেপে তা অনুমান করেন, কিন্তু সিলিন্ডারে গ্যাসের মাত্রা কত? তারপরও জানা যায় না।

এমন পরিস্থিতিতে কখনো কখনো হঠাৎ করে সিলিন্ডার বদলাতে বেশি সময় লাগে। তাই অবশ্যই আপনাদের আগে থেকেই বুঝে নিতে হবে যে কখন গ্যাস শেষ হতে পারে বা সিলিন্ডারে কতটা পরিমাণে গ্যাস রয়েছে। নয়তো আচমকাই গ্যাস শেষ হয়ে গেলে কিন্তু পরবর্তী সিলিন্ডার না আসা পর্যন্ত আপনাদের রান্নার কাজে বিশেষভাবে সমস্যা ভোগ করতে হবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে চলেছি এমন কৌশল যার সাহায্যে আপনারা বুঝতে পারবেন সিলিন্ডারে কতটা গ্যাস অবশিষ্ট রয়েছে। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

  • গ্যাস সিলিন্ডার খালি হয়ে যাচ্ছে সেটা বোঝার উপায়:

গ্যাস সিলিন্ডার খালি হয়ে যাচ্ছে কিনা বা তাতে কতদিন পর গ্যাস শেষ হবে এটা বোঝার জন্য কিন্তু প্রত্যেক মহিলাদেরই চেষ্টা করতে দেখা যায়। এটার কিন্তু একটা অত্যন্ত সহজ উপায় রয়েছে, যা জানলে আপনাদের আর কোন রকমের সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে না। চলুন সেই কৌশলটি সম্পর্কে আলোচনা করা যাক।

১) প্রথমেই আপনাদের একটি কাপড় নিয়ে তা ভালো করে জলে ভিজিয়ে নিতে হবে। তারপর এই ভেজা কাপড় দিয়ে আপনার সিলিন্ডারের একেবারে উপরের থেকে নিচের অংশ পর্যন্ত মুড়ে দিতে হবে।

২) এই কাজটি করার পর মোটামুটি ১০ মিনিট সময় পর্যন্ত আপনারা অপেক্ষা করতে থাকুন। এরপর আপনাদের একটি বিষয় লক্ষ্য করতে হবে সেটা হল,আপনার সিলিন্ডারের খালি অংশের জল শুকিয়ে যাবে এবং যেখানে গ্যাস আছে সেখানে জল শুকাতে সময় লাগবে।

৩) প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সিলিন্ডারের খালি অংশ গরম এবং ভরা অংশ ঠান্ডা হয়। অতএব, জলের জন্য শুধুমাত্র গরম অংশ শুকিয়ে যায়। গ্যাস ভর্তি অংশ যেহেতু ভরা থাকে তাই এটা শুকোতে কিন্তু স্বাভাবিকের থেকে বেশি সময় লাগবে। অবশেষে আমরা আপনাদের আরো কয়েকটি কথা বলব যেগুলো কিন্তু মাথায় রাখতে হবে।

  • সিলিন্ডার নিয়ে যে সমস্ত জিনিসগুলি করা উচিত নয়:

সিলিন্ডারে কতটা গ্যাস অবশিষ্ট আছে সেটা জানার জন্য কিন্তু অনেকেই নানান ধরনের চেষ্টা করে থাকেন। অনেক মহিলা গ্যাসের বার্নার জ্বালিয়ে আগুনের রঙ দেখে সিলিন্ডারে কতটা গ্যাস অবশিষ্ট রয়েছে তা ধারণা করার চেষ্টা করেন। ভুল করেও কিন্তু আপনারা এই চেষ্টা কখনো করবেন না।

সিলিন্ডারে গ্যাস কম থাকলে আগুনের রং সামান্য পরিবর্তন হতে পারে তবে এতে ঠিক কতদূর পর্যন্ত গ্যাস রয়েছে সেটা কিন্তু কোনভাবেই বোঝা যায় না। অনেকেই সিলিন্ডারের ওজন তুলে বোঝার চেষ্টা করেন যে কতটা। এটাও একটা সম্পূর্ণ ভুল পদ্ধতি। সিলিন্ডারে নিজস্ব ওজন খুব বেশি হওয়ায় গ্যাসের কতটা পরিমাপের মধ্যে রয়েছে সেটা কিন্তু আলাদাভাবে বোঝা বেশ কষ্টসাধ্য কাজ।

আবার এমনও কিছু মানুষ রয়েছেন যারা গ্যাসের শিখা কম হয়ে গেলে কিন্তু সিলিন্ডার উল্টে ফেলেন এবং অবশিষ্ট গ্যাস ব্যবহার করার চেষ্টা করেন। এটা কিন্তু ভীষণ রকমের বিপদজনক আর ঝুঁকিপূর্ণ কাজ। এটি আপনার সিলিন্ডারের ক্ষতি করে এবং ক্ষতির ঝুঁকি বাড়ায়, যা আপনার জন্য মারাত্মক হতে পারে।

Back to top button