একটি 500 টাকার নোট ছাপাতে কত খরচ হয় RBI এর? রইল বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- জীবনকে সুন্দরভাবে গুছিয়ে তোলার জন্য এবং মসৃণ ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য টাকা অত্যন্ত জরুরি । আমরা প্রতিদিন সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে রাত পর্যন্ত যে জিনিসটার জন্য মূলত কাজকর্ম করে যায় বা খাটাখাটনি করে দেয় সেটি হলো টাকা । কারণ এমনটা মনে করা হয় যে পৃথিবীতে এমন কোন জিনিস নেই যেটা টাকা দিয়ে কেনা যায় না । তাই উপার্জন করার লক্ষ্য আমাদের প্রত্যেকের থেকেই থাকে ।

কেউ সেটাতে সফল হয় আবার কেউ সফল হয় না । কিন্তু আপনি কি জানেন যে আমরা যে সমস্ত নোট ব্যবহার করে থাকি প্রতিদিনকার জনজীবনে সেই সমস্ত নোটগুলি ছাপাতে ঠিক কত টাকা খরচ হয়? এই কথা হয়তো অনেকেরই অজানা । তবে আপনার জানতে পারবে আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে । এই নোট ছাপানোর অধিকার শুধুমাত্র রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার রয়েছে । রিপোর্টস অনুযায়ী, RBI-কে নোট ছাপার জন্য মিনিমাম রিজার্ভ সিস্টেম নিয়ম মেনে চলতে হয় ৷

এই নিয়ম ১৯৫৬ সালে জারি করা হয় ৷ রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে কারেন্সি নোট প্রিন্টিংয়ের জন্য ন্যূনতম ২০০ কোটি টাকার রিজার্ভ সব সময় রাখতে হয় ৷ এর মধ্যে ১১৫ কোটি টাকা সোনা ও ৮৫ কোটি টাকা বিদেশি কারেন্সি হিসেবে রাখতে হয় ৷ পয়লা এপ্রিল ১৯৩৫ সালে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া প্রতিষ্ঠিত হয় । তার তিন বছর পর অর্থাৎ ১৯৩৮ সালে প্রথম ভারতীয় বাজারে ৫ টাকার নোটের প্রচলন শুরু করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবার আসুন আমরা জেনে নেব যে কোন নোট ছাপাতে কত টাকা খরচ হয় ।

এমনটা মনে করার কোন কারণ নেই যে সব নোট ছাপাতে একই পরিমানে অর্থ খরচ হয় । প্রতিটি নোট ছাপাতে আলাদা আলাদা খরচ হয় । ২০০ টাকা নোট ছাপার জন্য ২.৯৩ টাকা প্রতি নোটে খরচা হয় ৷ ৫০০ টাকার নোট ছাপতে খরচা হয় ২.৯৪ টাকা ৷ এই নোটে লাল কেল্লার ছবি রয়েছে ৷ অন্যদিকে ২০০০ টাকা নোট ছাপার জন্য প্রতি নোটে ৩.৫৪ টাকা খরচা হয় ৷ এটা বর্তমানে দেশের সবচেয়ে বড় নোট ৷ এই নোটের উপরে মঙ্গলযানের ছবি প্রিন্ট করা রয়েছে ৷ নোটবন্দির পর কেন্দ্রের তরফে ২০০০ টাকার নোট জারি করা হয়েছিল ।

Back to top button