সকলের এক কামড়েই হবে পছন্দ! খুব সহজ এই উপায়ে বানান দোকানের মতো টেস্টি সুগার ফ্রি সন্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদন: মিষ্টি খেতে কমবেশি সকলেই কিন্তু পছন্দ করে থাকেন। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় এই মিষ্টি খাওয়ার কারণে শরীরের মধ্যে নানান ধরনের রোগ ব্যাধি বাসা বেধে থাকে। বিশেষত যাদের সুগার অর্থাৎ ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তাদের পক্ষে কিন্তু মিষ্টি বা চিনি জাতীয় খাবার খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। এদিকে মিষ্টির প্রতিও রয়ে গিয়েছে ভালোবাসা! তাহলে উপায়? না আপনাদের মিষ্টি খাওয়া ছেড়ে দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

চাইলে খুব সহজেই মিষ্টির দোকানের থেকেও বেশি স্বাদের ও স্বাস্থ্যকর সুগার ফ্রি সন্দেশ আপনারা কিন্তু বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন অল্প সময়ের মধ্যে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব সুগার ফ্রি সন্দেশ তৈরি করার বিশেষ পদ্ধতি। সুতরাং আপনিও যদি মিষ্টি খাওয়া নিয়ে সমস্যায় ভুগে থাকেন তাহলে কিন্তু আমাদের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি একেবারেই মিস করবেন না।

বাড়িতে সুগার ফ্রি সন্দেশ তৈরি করার পদ্ধতি:

১) সন্দেশ তৈরি করার জন্য প্রথমেই আপনাদের কড়াইতে ১ লিটার পরিমাণ দুধ নিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিতে হবে। কিছুক্ষণ দুধ ফুটে যাওয়ার পরে গ্যাসের আঁচ আপনাদের নিচে নামিয়ে আনতে হবে। এবার মেজারমেন্ট কাপের হাফ কাপ পরিমাণ গুঁড়ো দুধ আপনাকে এই জাল দেওয়া দুধের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। গুড়ো দুধ কিন্তু আপনারা খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নেবেন অর্থাৎ কোন রকমের দলা যেন না থাকে। গুঁড়ো দুধ মেশানোর কারণে কিন্তু খুব সহজেই আপনাদের তরল দুধটা ঘন হয়ে যাবে অল্প সময়ের মধ্যে। এবারে দুটি পাত্রের মধ্যে আপনাদের কিসমিস আর কিছুটা পরিমাণে খেজুর নিয়ে নিতে হবে।

২) দ্বিতীয় ধাপের শুরুতেই খেজুরের মধ্যে থেকে আপনাদের বীজগুলিকে বের করে নিতে হবে ধীরে ধীরে। খেজুর আর কিসমিস দুটোকেই কিন্তু আগে থেকে জল দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করে রাখবেন। এবার সমস্ত খেজুর আর কিসমিস গুলিকে মিক্সিং জারের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে এবং এতে সামান্য পরিমাণে জল মিশিয়ে দিতে হবে। এবার খোসা ছাড়িয়ে এর মধ্যে তিন থেকে চারটি এলাচ অথবা এলাচ পাউডার মিশিয়ে দিন। তারপর এই তিনটি উপকরণ দিয়ে একটি ভালো করে মিহি পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। অন্যদিকে করাইতে যে দুধ বসিয়ে রেখেছিলেন সেটাকে কিন্তু আপনাদের আরো ভালো করে জাল দিয়ে ঘন করে নিতে হবে। দেখবেন দুধ কিন্তু শুকিয়ে একেবারে আসল পরিমাণের অর্ধেকেরও অর্ধেক হয়ে গিয়েছে।

৩) এবার এই দুধের মিশ্রণের মধ্যে আপনাদের খেজুর আর কিসমিসের পেস্ট দিয়ে দিতে হবে। খেজুর আর কিসমিস দিয়ে এই মিশ্রণ তৈরি করার কারনে কিন্তু সন্দেশ খুব ভালোভাবে মিষ্টি হয়ে যাবে আর খেতে খুবই ভালো লাগবে। দুধের মধ্যে এই মিশ্রণটি ঢেলে দেওয়ার পরে প্রায় বেশ কিছুক্ষণ সময় ধরে নাড়াচাড়া করে এটাকে আরো শুকনো আর ঘন করে তৈরি করতে হবে। যতটা আপনারা এটাকে ঘন করবেন ততটাই কিন্তু সন্দেশ খেতে ভালো হবে। মোটামুটি সাত থেকে আট মিনিট পরে আপনারা দেখতে পারবেন মিশ্রনের কালার অনেকটাই চেঞ্জ হয়ে গিয়েছে।

৪) সবশেষে আপনাদের যে কাজটি করতে হবে তা হল এই সন্দেশের মিশ্রণটিকে একটি প্লেটের মধ্যে নিয়ে ভালো করে ছড়িয়ে দিতে হবে। আগে থেকে ওই প্লেটের মধ্যে কিছুটা পরিমাণে ঘি ব্রাশ করে রাখতে কিন্তু ভুলবেন না। ভালো করে ছড়িয়ে নেবেন যাতে সুন্দর একটা শেপ দেওয়া যায়। ঠান্ডা হয়ে যাওয়ার পরে কিন্তু এই মিশ্রণটা আরো একটু শক্ত হয়ে যাবে তখন সন্দেশের আকারে আপনারা খুব সহজেই এটাকে কেটে নিতে পারবেন।

ব্যাস তৈরি হয়ে গেল সম্পূর্ণ সুগার ফ্রি খেজুর আর কিসমিস দিয়ে তৈরি এই সন্দেশ। বাচ্চা থেকে বড় সকলেই কিন্তু এটাকে খুব সহজেই খেতে পারবেন। সুতরাং যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তাদের কিন্তু আর আজ থেকে মিষ্টি খাওয়ার ক্ষেত্রে অসুবিধা হবে না।

Back to top button