অসাধারণ সুরে “আকেলে হে” – গান গেয়ে আবারো নেট দুনিয়ায় ভাইরাল রানু মন্ডল! ব্যাপক ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ফের গান গেয়ে নেট দুনিয়ার শোরগোল ফেলে দিলেন রানু মন্ডল । পাঠ্যপুস্তক এর বাইরে সোশ্যাল মিডিয়া যেন নতুন প্রজন্মদের কাছে আলাদা একটা বই হয়ে উঠেছেন । কারণ এই খানে পাওয়া যায় না এমন কোন জিনিস নেই । মাঝে মধ্যে এই সোশ্যাল মিডিয়া হাত ধরে ভাইরাল হতে দেখা যায় প্রথম সারির বিভিন্ন অভিনেতা-অভিনেত্রীদের । তার পাশাপাশি ভাইরাল হতে দেখা যায় সাধারণ মানুষদেরকে।

যদিও এমনটা মনে করা হয় যে অভিনেতা এবং অভিনেত্রী দের থেকে ভাইরাল হওয়ার পরিমাণ সাধারণ মানুষের অনেক বেশি । কারণ অভিনেতা এবং অভিনেত্রী আগে থেকে জনপ্রিয়তা পেয়ে থাকেন কেমনি বেশ কিছুদিন আগে জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন রানাঘাট স্টেশন চত্বরে গান গাওয়া রানু মন্ডল । রানাঘাটের স্টেশনে গান গাইতেন তিনি হঠাৎই একদিন তার গান রেকর্ড করে সোশ্যাল মাধ্যমে শেয়ার করেন এক সমাজসেবক যার নাম অতীন্দ্র ।

তারপর থেকে সে ভিডিওটি অত্যন্ত ভাইরাল হয়ে যায় ।এবং জনপ্রিয়তার নিরিখে তুঙ্গে পৌঁছে যায় । তার ভাইরালে প্রভাব এতটাই বেশি ছিলো যে গোটা বলিউড অব্দি পৌঁছে গিয়েছিল তার খবর । তাই বিখ্যাত গায়ক হিমেশ রেশমিয়া তাকে বলিউডে গান গাওয়ার জন্য সুযোগ দেন সেই সূত্রে তিনি গিয়েছিলেন তেরি মেরি গানটি যেটা তৎকালীন সময়ে পাড়ার পুজো মণ্ডপ থেকে শুরু করে জন্মদিনের পার্টি সবেতেই ব্যাপক পরিমাণে শুনতে পাওয়া যাচ্ছিল।

কিন্তু এরা নিজেদের জন্য আবার হারিয়ে গেছে । এমনটা মনে করা হয় যে রানু মন্ডল যেহেতু না চাইতে অনেক কিছু জিনিস অর্থাৎ নাম খ্যাতি টাকাপয়সা জনপ্রিয়তা পেয়ে গিয়েছিলো তাই তার শরীরের মধ্যে জন্মেছিলো বিপুল পরিমাণে অ-হংকার । এবং এই অ-হংকার জন্য তিনি তার অনুরাগীদের সাথে এবং সাংবাদিকদের সাথে দুর্ব্যবহার করতে শুরু করে । যার ফলে সাধারণ মানুষ তাকে আবার অপছন্দ করতে শুরু করে ।

সেই সূত্রে তিনি আবার ফিরে যান রানাঘাট স্টেশন চত্বরে নিজের বাড়িতে । লকডাউন এর সময় তার অবস্থা ভীষণ খারাপ হয়ে গেছিলো তা আমরা প্রত্যেকে জানি । কিন্তু পুনরায় নতুন রূপে ধরা দিলেন রানুদি । কয়েকদিন আগেই ভাইরাল হয়েছিল তার কন্ঠে “বাচপান কা পেয়ার” গানটি। আবারও ভাইরাল হলেন তিনি। এবার লতা মঙ্গেশকর এর গান নয় বরং মহম্মদ রফির গান গেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছেন তিনি।

এবার ষাটের দশকের “আকেলে হ্যায় হাম, চলে আও” গানটি তার গলায় শোনা যায়। যা শুনে বাহবা জানিয়েছেন বহু দর্শক। “বং অফিশিয়াল” নামক ইউটিউব চ্যানেল থেকে আপলোড করা হয়েছে ভিডিওটি এবং আপলোড হওয়া মাত্রই ঝ-ড়ের বে-গে ভাইরাল হয়েছে এটি। প্রায় ১৭,০০০ মানুষ লাইক করেছেন গানের ভিডিওটিকে।ভিডিওটি পুনরায় ঘরের মেঝেতে ভাইরাল হয়েছে ।

Back to top button