দারুন সুন্দর করে অভিনেতা দেবকে মেকআপ করে দিলেন তার ভাগ্নি, পড়ালেন টিপ-কাজল, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- তিনি বাংলার অভিনয় জগতে একজন সুপারস্টার তার বাড়ি পূর্ব মেদিনীপুরের ঘাটালের। সেই জায়গা থেকে উঠেছে কলকাতাতে পাড়ি দিয়েছিলেন নিজের স্বপ্ন পূরণের তাগিদের না এত সহজে জায়গা করে নিতে পারেনি টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে। তার জন্য তাকে রাত দিন পরিশ্রম করতে হয়েছে । মাঝেমধ্যে বি-ফলতা গ্রা-স করেছে তাকে । কিন্তু ইচ্ছা শক্তির জোরে তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন একজন সফল অভিনেতা হিসেবে তিনি আর কেউ নন বরং এই বাংলার গর্ব দীপক অধিকারী।

আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে দীপক অধিকারী কেন বাংলার গর্ব হতে পারে ? আরও তো অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী রয়েছেন তারা কেন নন । দীপক অধিকারী বাংলার গর্ব কারণ অভিনয় জগতের পাশাপাশি নিজেকে নিযুক্ত করেছেন রাজনৈতিক জগতেও এবং মানুষের দ্বারা জয়লাভ করে একজন দায়িত্ববান সাংসদের পরিণত হয়েছেন। একজন সাংসদের যে কাজ থাকা দরকার অর্থাৎ মানুষের পাশে দাঁড়ানো তাকে সাহায্য করা এবং তার নিরাপত্তা বজায় রাখা সেই সমস্ত কাজ গু-লি দীপক অধিকারী বছরের পর বছর ধরে একহাতে করে আসছে ।

তাই তো বাকি অন্যান্য রাজনৈতিক নেতা মন্ত্রীদের উপর মানুষের রা-গ ক্ষো-ভ অ-ভিমান থাকলেও দীপক অধিকারীর উপর বিন্দুমাত্র রা-গ নেই। এমনকি বি-রোধীদলের নেতা মন্ত্রীদের থেকেও শোনা যায় তার গুনগান । অভিনেতা বা রাজনীতিবিদ হওয়ার পাশাপাশি তিনি কিন্তু একজন খুব সাধারন মানুষ ।এবং যেহেতু একদম গ্রাম্য পরিবেশ থেকে উঠে এসেছে তাই মানুষের সাথে মেলামেশা করতে যথেষ্ট পরিমাণে ভালোবাসা। কোনরকম অ-হং-কার জন্মাতে দেয়নি তার শরীরে ।তার অভিনীত ছবিগুলো দেখলে আপনি ম-ন্ত্রমুগ্ধ হয়ে যাবেন ।অবশ্যই বাংলা উচ্চারণ কে নিয়ে অনেকে অনেক ঠা-ট্টা বি-দ্রুপ ক-রে মাঝেমধ্যে কিন্তু সমস্ত কিছুকে পড়ে যায় তার কাজকর্মের কাছে।

সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে সেখানে একদম ঘরোয়া পরিবেশে দেখা গেছে দীপক অধিকারী কে তার ভাগ্নির সাথে খু-নসুটি করতে ।তার ভাগ্নি তাকে মেকআপ করে দিচ্ছে এবং শান্তভাবে বসে তার সেই অ-ত্যাচার স-হ্য করছে দীপক অধিকারী ।তার ভাগ্নি কখনো তাকে স্পা করে দিচ্ছে কখনো আবার ঠোঁটে লাগিয়ে দিচ্ছে লিপবাম । এবং সেই সমস্ত ঘটনাবলি নিজে তিনি যথেষ্ট উপভোগ করছে । পাশে থাকা কেউ একজন তার সেই মুহূর্তকে ক্যামেরাবন্দি করেছেন । এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে আসা মাত্রই পুনরায় ঝ-ড়ের গ-তিতে ভাইরাল হয়েছে ।

Back to top button