একাউন্টে টাকা না থাকলেও তুলতে পারবেন 10,000 টাকা যেকোনো সময়! চালু নতুন সুবিধা! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন:- কোরোনা আবহে গোটা দেশজুড়ে যখন লকডাউন, আর্থিক ব্যবস্থা যখন ভে-ঙে পড়েছে ঠিক তখনই কেন্দ্রীয় সরকার বলাবাহুল্য মোদি সরকারের পক্ষ থেকে মিলেছে সাহায্য । উপকৃত হয়েছেন বহু সাধারণ পরিবারের মানুষেরা ।হাসি ফুটেছে অনেক গরিব দরিদ্র শ্রেণীর মানুষের মুখে ।জুটেছে দুমুঠো ভাত । কিভাবে মিলছে বা মিলবে এই সাহায্য তা নিয়ে বিস্তারিত ভাবে জানিয়েছে সরকার ।

কেন্দ্রীয় সরকার তথা মোদি সরকারের পক্ষ থেকে “জনধন প্রকল্প “বলে একটি প্রকল্প চালু করা হয় । করোনা আ-বহে এই প্রকল্পের মাধ্যমে মানুষেরা ৫০০ টাকা করে পাবেন । দেশ-জুড়ে দীর্ঘ লকডাউন চলাকালীন দেশে যখন আ-র্থিক অবস্থা প্রায় সং-কটে তখন সরকারের এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাধারণ মধ্যবিত্ত থেকে নিম্ন শ্রেণীর মানুষেরা । তবে কোনো নির্দিষ্ট ব্যাংক একাউন্টে এই টাকা আসবে না। একমাত্র জনধন প্রকল্পের অন্তর্গত ব্যাঙ্ক গুলিতে বা ব্যাংক হোল্ডার গুলিকেই দেওয়া হবে এই টাকা ।

আপনার কি ব্যাংকে একাউন্ট আছে ?সেই ব্যাংক এর একাউন্ট কে কি পরিবর্তন করে “জনধন প্রকল্পের “আওতায় আনতে চান? তাহলে সরকারের তরফ থেকে বেশ কিছু নিয়মাবলী এবং পদ্ধতির কথা উল্লেখ করা হয়েছে যা অনুধাবন করলে স্পষ্ট ও পরিষ্কারভাবে আপনি বুঝতে পারবেন কিভাবে এই প্রকল্পের আওতায় আসা যায় । নিচে রইল তার বিস্তারিত তথ্য । কিভাবে পুরনো একাউন্ট কে রূপান্তরিত করবেন জনধন একাউন্ট এ তার জন্য রইল তথ্য ও নিয়মাবলী:-

১) নিকটবর্তী ব্যাংকের শাখায় যোগাযোগ করুন।
২) একটি ফর্ম ফিলআপ করুন ও একটি রুপে কার্ডের জন্য আবেদন করুন।
৩)ফর্ম ফিলাপের পর সেই সম্পূর্ণ ফর্মটিকে ব্যাংকে জমা দিন।
৪) এরপর ব্যাংক আপনার পুরানো অ্যাকাউন্টটিকে জন ধন অ্যাকাউন্টে রূপান্তর করবে।

আবার অনেকের প্রশ্ন কি সুবিধা পাওয়া যাবে এই প্রকল্পের আওতায়? তার উত্তর ভেবে রেখেছেন কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে দেওয়া গাইডলাইন অনুযায়ী এই প্রকল্পের আওতায় সুবিধাগুলি হলো :-
১) জন ধন অ্যাকাউন্টধারক ব্যাংকে জমা হওয়া অর্থের উপর সুদ পান।
২) অ্যাকাউন্টধারকরা নিখরচায় মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা পান।
৩) জন ধন অ্যাকাউন্টধারক ১০০০০০ টাকার ওভারড্রাফট সুবিধা নিতে পারবেন।
৪) এই অ্যাকাউন্টের সঙ্গে অ্যাকাউন্টধারক দুর্ঘটনার জন্য ২ লাখ টাকার বীমার আওতায় পড়েন।
৫) অ্যাকাউন্টধারীর মৃত্যুর পরে নমিনী অর্থ পাবেন। ৩০০০০ টাকার বীমাও কভার করে।
৬) এই অ্যাকাউন্টে কোনও মিনিমাম ব্যালেন্স রাখার প্রয়োজন পড়ে না। তবে অ্যাকাউন্টধারক যদি চেক বইয়ের সুবিধা গ্রহণ করেন তবে মিনিমাম ব্যালেন্স বজায় রাখতে হবে।
তাহলে দেরি কিসের? আপনার যদি মনে হয় যে আপনিও হতে পারেন এই প্রকল্পের আওতায়। সরকারের থেকে নিতে চান সাহায্য তাহলে আপনার ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট কে আজই পরিবর্তন করে ফেলুন জনধন” একাউন্টে ।

Back to top button