যেভাবে দারুচিনি গাছ থেকে দারুচিনি সংগ্রহ করা হয়, রইলো ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের রান্নাঘরে এমন অনেক জিনিস রয়েছে যেগুলো হয়তো আমরা বাজার থেকে খুব সহজেই পেয়ে যায় কিন্তু সেগু-লি তৈরি করতে বা সংগ্রহ করতে যথেষ্ট পরিশ্রম করতে হয় । এই যেমন ধরুন দারুচিনি । দারচিনি রান্নার স্বাদ কে ভিন্নমাত্রায় পাল্টাতে সাহায্য করে ঠিক কথাই কিন্তু এটি সংগ্রহ পদ্ধতি দেখলে আপনি রীতিমত অ-বাক হবেন । দীর্ঘ সময় সাপেক্ষ এই সংগ্রহ পদ্ধতি । আচ্ছা আপনাদের কখনো মনে হয়নি যে অন্যান্য উপকরণের তুলনায় দারুচিনির দাম এত বেশি থাকে কেন ? তার উত্তর দেবো আজকের এই প্রতিবেদনে।

ভারতের উত্তর দিকের অঞ্চলগু-লিতে মূলত চাষ হয়ে থাকে এই দারুচিনি গাছের । যেমন আমাদের আশেপাশে অঞ্চলের ধান পাট ইত্যাদি চাষ হয় ঠিক তেমনি উত্তরের অঞ্চলগু-লিতে এই ধরনের ফসলের চাষ করা হয়। এবং আমরা যেমন একটি নির্দিষ্ট সময় পর ধানক্ষেত থেকে তুলে এনে সম্পূর্ণ মানুষের সাহায্যে সেগুলিকে চালে পরিণত করি ঠিক তেমনি তারা সেখানকার ফসল গু-লি কে সংগ্রহ করে ।

সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখানো হয়েছে যে উত্তরে মানুষরা কিভাবে দারুচিনি চাষ করে। প্রথমে তারা যে সমস্ত ছোট ছোট চারা গাছ গুলি লাগায় সেগুলি কিছুদিন পর বড় হয়। এবং এর আকৃতি অন্যান্য কাছে তুলনায় কিছুটা বড় অর্থাৎ লম্বা তে বেশি বড় না হলেও ঝোপ জাতীয় হয়ে থাকে এই সমস্ত গাছগুলি তাই কিছুটা বেড়ে যাওয়ার পর সেগু-লি একটি জ-ঙ্গলে পরিণত হয় ।যার ফলে নির্দিষ্ট গোছাই বেঁধে রাখতে হয় এই দারুচিনির গাছ গুলিকে। তারপর যখন সে গাছগু-লি নির্দিষ্ট মাত্রা বেড়ে ওঠে তখন তার ডালকে এবং পাতাগু-লি কি আলাদা করে দেওয়া হয় ।

এরপর সেই ডাল গু-লিকে নির্দিষ্ট মাপে হাতের সাহায্যে কাটা হয় তারপর ডালের উপরে যে ধূসর রংয়ের অংশ থাকে সেটি কে চেঁচে ফেলে দেওয়া হয় এবং তারপর যে সাদা অংশটি বেরিয়ে আসে সেই থেকে উপরের খোলস ছাড়িয়ে নেয়া হয়। এবং এটাই হচ্ছে দারুচিনি। এটিকে বেশ কিছু দিন শুকিয়ে দেওয়া হয় তারপর লম্বা লম্বা করে বান্ডিল তৈরি করে রপ্তানি করা হয় বিভিন্ন জায়গাতে। কখনো কখনো আবার এগু-লিকে মেশিনের সাহায্যে গুঁড়ো করে পাঠানো হয় অন্যত্র। যেহেতু এই অত্যন্ত সময়সাপেক্ষ এবং কঠিন তাই বর্তমান বাজারে দারুচিনির মূল্য অত্যধিক ।

Back to top button