আনমনায় শুয়েছিলেন যুবতী, হটাৎ পাশ থেকে ফোঁ-স করলো কো-ব’রা, ঘটলো বি-প’ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোশ্যাল মিডিয়ার দরুন আমরা বর্তমান যুগে এমন বেশকিছু ধরনের ঘটনা দেখে থাকি যা হয়তো এর আগে আমরা কোনোদিন দেখিনি । সেই সমস্ত ঘটনাবলি আমাদেরকে অবাক করে তোলার পাশাপাশি করে তোলে হত-ভ-ম্ভো এবং কৌ-তুহলী । যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে মুহুর্তের মধ্যে উঠে আসা যায় সবার নজরে । তাই সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে জনপ্রিয় হতে চাই এই প্রজন্মের প্রতি ছেলে এবং মেয়ে । সেই তালিকা থেকে বাদ যায়নি অভিনেতা এবং অভিনেত্রী । নিজেদের জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে তুলতে জীবনের ছোটখাট মুহূর্ত তুলে ধরে অনুগামীদের সাথে।

এর পাশাপাশি আমরা জানি যে সা-প হল এমন এক ধরনের সরী-সৃ-প প্রা-ণী যাকে কমবেশি প্র-ত্যেকে ভ-য় পা-য় । কারণ তার এ-কটি ছো-বলে শে-ষ হয়ে যেতে পারে একটি জল-জ্যা-ন্ত জী-বন । আগেকার যুগে প্রচুর মানুষ সা-পের কা-মড়ে মারা যেত কারণ তখন ছিল না ভালো মতন কোনো ও-ষুধ বা হা-স-পা-তালে ব্যবস্থা তার সাথে সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হওয়ার কারণে হাসপাতালে পৌঁছতে দেরি হতো অধিক ক্ষেত্রে তাই তৎক্ষণাৎ মৃ-ত্যু ঘ-টতে পারে কিন্তু বর্তমান সময়ের পরিস্থিতির উন্নতি ঘটেছে ব্যাপক পরিমাণে এখন আর সা-পের কা-মড়ে মৃ-ত্যু খুব কম জনই সাথে ঘটে ।

সম্প্রতি ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে এবং বলাবাহুল্য মোটামুটি ভালো রকম ভাবে ভাইরাল হয়েছে । সেখানে একটি বাড়ির রান্না ঘরে লু-কিয়ে ছিল একটি বি-ষ-ধর সা-প । এবং তারা তাদের স্থানীয় এক সা-পুড়ে কে খবর দেয় । ঘটনাস্থলে পৌঁছায় সা-পুড়ে এবং তিনি গিয়ে দেখে সেটি অত্যন্ত বি-ষ-ধর সাপ যার নাম কো-বরা । বিভিন্ন ধরনের জাত হয় তবে এটি নাকি সব থেকে বেশি ভ-য়-ঙ্কর বলে চি-হ্নিত ক-রেন ওই সা-পুড়ে । মূলত ইন্দুর খাওয়ার জন্যই সাপটি বাড়ির ভিতর প্রবেশ করেছে । এর পাশাপাশি বাড়ির লোকের সাথে সাথে তার অধিকাংশ লোক ভয়ে ভীত স-ন্ত্রস্ত হয়ে গিয়েছিল । কারণ এই ধরনের সাপ অত্যন্ত উগ্র মে-জা-জের হয়ে থাকে । যেকোনো সময় ছো-বল মা-রতে পারে যে কাউকে আর একবার ছো-বল মা-রলে জী-বন শে-ষ ।

সেই সা-পুড়ে কে অসম্ভব ভাবে তারা করে আসছিল সেই কো-বরা । রীতিমতো ফ-ণা তু-লে ভ-য় দে-খা-চ্ছিলো বাকি সকল দেরকে । সেই সা-পটি গ্যাস সিলিন্ডারের পাশে লু-কিয়ে ছি-ল । কিন্তু দীর্ঘক্ষণ এর ল-ড়াই জা-রি রাখার পর অবশেষে সেই সা-পটি কে ধরতে সক্ষম হয় সেই সা-পুড়ে । এবং সেই তিনি একটি প্লাস্টিকের বড় জায়গা থেকে ভরে নিয়ে চলে যান পরবর্তীকালে কোথাও ছেড়ে দেবেন বলে । ঘটনাটি ঘটেছে উড়িষ্যার এক গ্রামে। তবে আমাদের এই ধরনের ঘটনা থেকে সব সময় সচেতন থাকতে হবে এবং শিক্ষা নিতে হবে । যে বাড়ির আশেপাশে যে কোন জায়গা ভালো মতন ভাবে দেখে শুনে তারপরে কাজ করা উচিত ।

Back to top button