বিপুল পরিমাণে আর্থিক ক্ষ’তির মুখে বাংলা! জলবায়ু পরিবর্তনের ফলেই ঘটতে পারে দুর্যোগ! বেরিয়ে এল জোড়া সমীক্ষায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ভবিষ্যৎ নয় বরং বর্তমান এই মাশুল গুনতে হচ্ছে বাংলা সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যকে এবং আগামী দিনে অর্থনৈতিক প্রভাব আরো বাড়বে এই সমস্ত যে রাজ্যগু-লিতে সে ব্যাপারে নিশ্চিত। এমনটাই জানাচ্ছে সমীক্ষা। দ্রুত জলবায়ু পরিবর্তন হবার ফলে বাংলা বিহার সহ একাধিক রাজ্যের আর্থিক পরিবর্তন ঘটবে ব্যাপক পরিমাণে।

শুধুমাত্র পরিবর্তন নয় তার পাশাপাশি চরম জল সংকটের সম্মুখীন হবে এই সমস্ত রাজ্যগু-লির। যদি পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা আর মাত্র এক সেলসিয়াস বেড়ে যায় তাহলে এই ভ-য়াবহ তা গ্রা-স করবে এই সমস্ত রাজ্যগু-লির কে। ভারতবর্ষের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ এবং বিহার উড়িষ্যা ঝাড়খণ্ড ইত্যাদি রাজ্যগু-লি যেহেতু কৃষিনির্ভর তাই প্রভাব ফেলবে এই সমস্ত রাজ্যগুলিতে। সমীক্ষা জানাচ্ছে গোটা ভারতের ক্ষেত্রেই ছবিটা ভ-য়াবহ হয়ে উঠবে।

কারণ, গড় তাপমাত্রা আর এক ডিগ্রি বাড়লেই প্রতি বছরে দেশের মোট জাতীয় উৎপাদন (জিডিপি) তিন শতাংশ হারে কমবে যদি পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার উদ্ভাবনী পথ অবিলম্বে খুঁজে বার করা না যায়।এই হুঁশিয়ারি দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ও সেবি স্বীকৃত দেশের আর্থিক বৃদ্ধির মূল্যায়নকারী শীর্ষস্তরের সংস্থা ‘ইন্ডিয়া রেটিংস অ্যান্ড রিসার্চ। এর পাশাপাশি আরও একটি সমীক্ষা জানাচ্ছে যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বাংলা এবং বিহার।

যেহেতু এই দুইটি রাজ্য কৃষির উপর নির্ভরশীল তাই জলবায়ুর পরিবর্তন প্রভাব ফেলবে এই দুই রাজ্যের উপর।জলের অভাব থেকে শুরু করে অর্থনৈতিক অভাব দেখা যাবে রাজ্যজুড়ে তবে সেই পরিস্থিতিকে কতটা সামাল দিতে পারছে রাজ্য তার ওপর নির্ভর করছে বাকি সবকিছু ।ইন্ড-রা-র সমীক্ষা জানাচ্ছে, অর্থনীতি মূলত কৃষিনির্ভর হওয়ায় জলবায়ু পরিবর্তনের ধাক্কার মাসুল সবচেয়ে বেশি গুনতে হবে দেশের ছ’টি রাজ্যকে। তার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে বিহার ও পশ্চিমবঙ্গ। সেই তালিকায় রয়েছে আরও চারটি রাজ্য— অসম, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড ও ছত্তীসগঢ় ।

Back to top button