অর্পিতা দেবশ্রী বাদ! এবার ঋতুপর্ণাকে সাত পাকে বাঁধতে চান বুম্বাদা! স্বীকার করলেন নিজের মুখে, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- নব্বইর দশকে বাংলা চলচ্চিত্র জগতের জনপ্রিয় জুটি বলতে প্রথমেই যাদের কথা বলা যেত তারা হলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় আর ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। তখন সিনেমাহলে এই জুটির সিনেমা মুক্তি পাওয়া মানেই তা ছিল সুপারহিট। সময়ের সাথে সাথে একসঙ্গে তাদের কাজের সংখ্যা অনেকটাই কমে গিয়েছে। টলিউডে প্রসেনজিৎ আর ঋতুপর্ণা একসঙ্গে শেষ কাজ করেছিলেন দৃষ্টিকোণ ছবিতে। ঠিক ৯০ এর দশকের অন্যান্য ছবির মতন এই ছবিটিও কিন্তু জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। তারা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে সময় পেরিয়ে গেলেও দর্শকদের মধ্যে এই জুটির ম্যাজিক এখনো কমে যায়নি।

অনেকেই হয়তো জানেন না প্রসেনজিৎ আর ঋতুপর্ণার এই জনপ্রিয় জুটি একসঙ্গে ৫০ টি সিনেমাতে অভিনয় করেছিলেন। তার মধ্যে বেশিরভাগ সিনেমা গুলিই কিন্তু একেবারে বক্স অফিসের সুপারহিট। ৯০ এর দশকের শেষের দিকে আচমকাই তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয় কোন কারণে। এরপর দীর্ঘদিন পর্যন্ত আর তাদেরকে একসঙ্গে দেখা যায়নি। শেষমেষ সময়ের প্রভাবে এই মনমালিন্য চলে যায় এবং পরবর্তীতে ১৫ বছর পর ২০১৬ সালে শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায়ের ‘প্রাক্তন’ ছবিতে কামব্যাক করেন তারা। এরপর ২০১৮ সালে দৃষ্টিকোণ ছবিতেও একসঙ্গে দেখা যায় তাদের।

সম্প্রতি এই সবকিছুর মাঝেই আবারো শোনা যাচ্ছে কিছুদিনের মধ্যেই বিয়ে করতে চলেছেন প্রসেনজিৎ আর ঋতুপর্ণা। কি অবাক হলেন তো? আসল ব্যাপার হচ্ছে আজ জাতীয় সিনেমা দিবস। এই দিন নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করে নিয়েছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। বুম্বাদার শেয়ার করা সেই ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে তিনি চিৎকার করে ঋতুপর্ণাকে ডাকছেন এবং বলছেন বিয়ের ডেট ঠিক করতে হবে। কিন্তু ছেলে বড় হয়ে গিয়েছে মেয়ে বড় হয়ে গিয়েছে এখন বিয়ে! তাই প্রথমে প্রসেনজিৎ কি বলছেন তার কথা কিছুই বুঝতে পারছিলেন না ঋতুপর্ণা।

ঋতুপর্ণার এই ভাবমূর্তি দেখে প্রসেনজিতের সংযোজন, ‘আমাদের বিয়ের কথা থোড়াই বলছি… ওই যে ভিতরে…’। ব্যাস এরপর এই ভিডিও আটকে যেতে দেখা যায়। যা সম্পূর্ণটাই আসলে করা হয়েছে প্রচারের জন্য। এইভাবে অসম্পূর্ণ ভিডিও আপলোড করায় ইতিমধ্যেই দর্শকদের মধ্যে তৈরি হয়েছে ব্যাপক কৌতূহল। ভিডিওর ক্যাপশনে অভিনেতা লিখেছেন ‘বিয়ের তারিখটা তো ঠিক করতে হবে নাকি! কি আপনারাও জানতে চান তো?’ আসল ব্যাপার হচ্ছে পরিচালক সম্রাট শর্মার আগামী ছবির নাম প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা।

এই ছবিতে ক্যামিও চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন এই জনপ্রিয় প্রাক্তন জুটি। আর সেই ছবির ই প্রচারের কাজে নেমে পড়েছেন তারা। প্রসেনজিৎ আর ঋতুপর্ণা ছাড়াও এই ছবিতে আরো অনেক নতুন মুখকে দেখতে পাবেন দর্শকেরা। এই প্রসঙ্গে বলে রাখি চলতি বছর ভ্যালেন্টাইনস ডের সময়েই নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল থেকে একটি পোস্ট শেয়ার করেছিলেন প্রসেনজিৎ। সেই পোস্টে প্রসেনজিৎ আর ঋতুপর্ণার বিয়ের ডিজিটাল কার্ড দেওয়া ছিল দর্শকদের উদ্দেশ্যে। যার শুরুতেই জ্বলজ্বল করছিল, ‘প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা’।

এরপর স্ক্রিনে ফুটে ওঠে “সবিনয় নিবেদন, মহাশয়/ মহাশয়া, বিগত ৩ দশকেরও বেশি সময় ধরে একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করার পরে আমরা নতুনভাবে আপনাদের সামনে আসতে চলেছি। ‘প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা’। গুরুজনদের আশীর্বাদ আর সবার ভালোবাসা নিয়ে আগামীদিনে পথ চলতে চাই। পাকা দেখা থেকে বিয়ের সব দায়িত্ব সামলাচ্ছেন সম্রাট শর্মা ও তাঁর টিম হাট্টিমাটিম। বিয়ের ঘটকালির দায়িত্বে পল্লবী চট্টোপাধ্যায়। তত্ত্বাবধানে মোহর ও শর্মিষ্ঠা। ডিজিটাল নিমন্ত্রণ পত্রের দ্বারা ত্রুটি মার্জনীয়। বিনীত, বিনীতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। বিয়ে সম্পর্কিত যে কোনও রকম তথ্যের জন্য কোনওরকম লজ্জা না পেয়ে ফোন করুন মোহর ও শর্মিষ্ঠাকে”।

Back to top button